ভারত মহাসাগরের বিশাল টেকটনিক প্লেট ভেঙে দু'টুকরো, ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

আপাতদৃষ্টিতে দেখলে এই দুটি প্লেট—এর দূরে সরে যাওয়ার গতি খুবই ধীর। এই গতিতে চলতে থাকলে এক মাইল দূর যেতে দুটি প্লেট—এর ১০ লাখ বছর সময় লাগার কথা।

Updated By: May 26, 2020, 03:18 PM IST
ভারত মহাসাগরের বিশাল টেকটনিক প্লেট ভেঙে দু'টুকরো, ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদন— সত্যিই বিষধর বিশ! ২০২০ সালে যে আরও কত ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে কে জানে! এবার জানা যাচ্ছে, ভারত মহাসাগরের নিচে বিশাল টেকটনিক প্লেট ভেঙে দুটুকরো হয়ে গিয়েছে। আর তাই ভবিষ্যতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা করছে বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞান বিষয়ক ওয়েবসাইট লাইভ সায়েন্সে জানিয়েছে, ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মকরাঞ্চলের ওই প্লেট প্রত্যেক বছর ০.০৬ মিলিমিটার করে দূরে সরে যাচ্ছে। আট বছর আগে একবার ভারত মহাসাগরের নিচে ভূমিকম্প হয়েছিল। তার পর থেকেই ওই প্লেট—এর এমন পরিবর্তন লক্ষ্য করছেন বিজ্ঞানীরা।

আপাতদৃষ্টিতে দেখলে এই দুটি প্লেট—এর দূরে সরে যাওয়ার গতি খুবই ধীর। এই গতিতে চলতে থাকলে এক মাইল দূর যেতে দুটি প্লেট—এর ১০ লাখ বছর সময় লাগার কথা। কিন্তু পুরো প্রক্রিয়াটাই ঘটছে জলের তলায়। ফলে ঠিক কী কী পরিবর্তন চলছে তা সবসময় নজরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। দুটি প্লটের আলাদা হয়ে যাওয়ার গতি কম হলেও বিজ্ঞানীরা চিন্তায় রয়েছেন। কারণ এভাবে প্লেট সরে যাওয়াই ভূমিকম্পের কারণ হতে পারে। তবে অদূর ভবিষ্যতেই যে বড়সড় কোনও ভূমিকম্প হবে তা নিয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলছেন না বিজ্ঞানীরা। গবেষক অরলি কৌদুরিয়ার-কার্ভুর যেমন জানিয়েছেন, অন্য গ্রহের বাউন্ডারির তুলনায় এটি গুরুত্বপূর্ণ আমাদের কাছে। সবটাই ঘটছে জলের নিচে। জলের এত গভীরে সব পরিবর্তন ঘটছে। তাই সব সময় সব পরিবর্তন আমাদের নজরেও পড়ছে না। তবে দুটি প্লেট ভেঙে দুটুকরো হয়েছে। আর সেগুলি ক্রমশ পরস্পরের থেকে সরছে। গতি অবশ্য অনেকটাই কম।

আরও পড়ুন— ভারতে করোনা বাড়ছে, চিনা নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বেজিং

বিশ্ব উষ্ণায়ন থেকে শুরু করে দূষণ, একের পর এক কারণে এমনিতেই পৃথিবীর ভবিষ্যত নিয়ে বারবার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন পরিবেশবিদরা। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই দুই প্লটের সরে যাওয়ার ফলে ২০ হাজার বছর পর পৃথিবীতে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা দিতে পারে।