সরস্বতীপুজো-পুরভোট একই দিনে; তারিখ বদলের আর্জি খারিজ হাইকোর্টে, ক্ষোভে রাস্তায় ঢাকার পড়ুয়ারা

গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের দিন ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন

Updated By: Jan 15, 2020, 04:05 PM IST
সরস্বতীপুজো-পুরভোট একই দিনে; তারিখ বদলের আর্জি খারিজ হাইকোর্টে, ক্ষোভে রাস্তায় ঢাকার পড়ুয়ারা

নিজস্ব প্রতিবেদন: সরস্বতী পুজোর দিনেই পুরভোট। এনিয়ে তোলপাড়া ঢাকা।  আদালত পর্যন্ত বিষয়টি গড়ালেও অনড় নির্বাচন কমিশন। এনিয়ে চরম ক্ষোভ ঢাকায়।

আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোট নেওয়া হবে ঢাকা সাউথ সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা নর্থ সিটি কর্পোরেশনে।  আর এই দিনেই পড়েছে সরস্বতী পুজো। ভোটের দিন পরিবর্তনের আবেদন নিয়ে ঢাকা হাইকোর্টে গিয়েছিল পুজো কমিটিগুলি।  কিন্তু ভোটের দিন বদল করতে অস্বীকার করে ঢাকা হাইকোর্টের বিচারপতি মহম্মদ খাইরুল আলম ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের বেঞ্চ। হয়তো সুপ্রিম কোর্টেও যেতে পারেন আবেদনকারীরা।

আরও পড়ুন-২৬৪ কোটি টাকা ব্যয়ে পুনর্নির্মাণ হবে টালা ব্রিজ, টেন্ডার ডাকল পূর্ত দফতর

এনিয়ে তীব্র ক্ষোভ দেখিয়েছেন সাধারণ মানুষ।  বিক্ষোভ দেখানো হয় শাহবাগে। হাতে হাত রেখে মানব বন্ধনও তৈরি করা হয়। ব্যাস্ত সময়ে রাস্তা অবরোধ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  শয়ে শয়ে পড়ুয়ারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ছাত্রনেতা ও প্রতিবাদী পড়ুয়াদের মুখপাত্র উত্পল বিশ্বাস বলেন, নির্বাচন কমিশন আমাদের দাবি না মানলে, কমিশন ঘেরাও করব আমরা।

উল্লেখ্য, গত বছর ২২ ডিসেম্বর ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের দিন ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। জানিয়ে দেওয়া হয় ভোট নেওয়া হবে ৩০ জানুয়ারি। তার পরেই এনিয়ে সরব হয় শহরের পুজো কমিটিগুলি।  এদিকে ঢাকার স্কুলগুলিতে পুজোর জন্য ছুটি ঘোষণা করা হয় ২৯ জানুয়ারি। ফলে এনিয়ে বেশ জটিলতা তৈরি হয়ে যায়।

আরও পড়ুন-কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা রোগীর

এদিকে, পুজোর দিন যাতে ভোট না নেওয়া হয় তার আবেদন করে  ঢাকার পুজো উদযাপন পরিষদ ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়। কিন্তু অনড় কমিশন। এনিয়ে রবিবার ও সেমাবার বিক্ষোভ দেখান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা।