এক কেজি আটার দাম আকাশছোঁয়া, রুটি খেতে না পাওয়ার আশঙ্কায় পাকিস্তানিরা

জানা যাচ্ছে, পাকিস্তানের কোনও কোনও জায়গায় এক কিলো আটা ৭০ টাকাতেও বিক্রি করছেন বিক্রেতারা।

Edited By: সুমন মজুমদার | Updated By: Jan 19, 2020, 06:07 PM IST
এক কেজি আটার দাম আকাশছোঁয়া, রুটি খেতে না পাওয়ার আশঙ্কায় পাকিস্তানিরা

নিজস্ব প্রতিনিধি : ভেঙে পড়া অর্থ ব্যবস্থা নিয়ে এমনিতেই চিন্তায় রয়েছে ইমরান খানের সরকার। তার মধ্যে আবার এসে জুটেছে নতুন সমস্যা। পাকিস্তানের আওয়াম আটার আকাশছোঁয়া দামে চিন্তিত। কিছুদিন আগে পর্যন্ত টমাটো পাওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগেছেন পাকিস্তানের জনগণ। এবার আলোচনার কেন্দ্রে আটা। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, ইমরানের দেশের বেশিরভাগ জায়গায় এক কিলো আটার দাম ৬২ টাকা। গত এক সপ্তাহেই আটার দাম কিলো প্রতি বেড়েছে পাঁচ টাকা। 

জানা যাচ্ছে, পাকিস্তানের কোনও কোনও জায়গায় এক কিলো আটা ৭০ টাকাতেও বিক্রি করছেন বিক্রেতারা। মাসখানেক আগেও করাচিতে দশ কিলো আটার দাম ছিল ৪৫০ টাকা। এখন সেখানে দশ কিলো আটার দাম হয়েছে ৬২০ থেকে ৭০০ টাকা। বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, গমের দাম আচমকাই লাফিয়ে বেড়েছে। ফলে এমন মূল্যবৃদ্ধি। ফ্লোর মিল অ্যাসোসিয়েশন কিলো প্রতি আটার দাম ছটাকা বাড়়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তার পর থেকেই মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাস অবস্থা। দাম কবে কমবে সেই ব্য়াপারেও কোনও স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন-  CAA ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হলেও এই আইনের কোনও প্রয়োজন ছিল না: হাসিনা

লাহোরের একটি প্রথম সারির দৈনিকের খবর অনুযায়ী, শনিবার ইমরান খান রাজ্য সরকারকে খাদ্য দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধিতে লাগাম টানার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এদিকে রেস্তোরাঁ ও ধাবা মালিকরা সোমবার থেকে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সরকারের কাছে তাঁদের দাবি, পুরনো মূল্যে আটা সরবরাহ করতে হবে। না হলে রুটি ও নান-এর দাম অস্বাভাবিক বাড়িয়ে দিতে বাধ্য হবেন তাঁরা। ইমরানের সরকার অবশ্য বলছে, গমের দাম বাড়ার খবর ভুয়া। সরকারি গুদামে চার মিলিয়ন টন গম মজুত রয়েছে। ফলে এমনভাবে লাফিয়ে দাম বাড়ার কোনও যুক্তি নেই।