সর্বনাশা চিট ফান্ড নিয়ে সিনেমা, মুক্তির আগেই রাজ্যে বিপর্যয়

সর্বনাশের কারবারে সর্বস্বান্ত মানুষ। কেন্দ্র, রাজ্য কার অধিকার, কোন আইনে কী হবে, তা বুঝে ওঠা দায়। বহু আগে থেকেই রাজ্য সরকারকে সতর্ক করা হয়েছিল। সতর্ক করেছিল আয়কর দফতর। তার ওপর ভিত্তি করেই নির্মিত হয়েছিল একটি সিনেমা। আগামী দশই মে তা মুক্তি পাচ্ছে।  তার আগেই ঘটে গিয়েছে বিপর্যয়।

Updated: Apr 22, 2013, 09:50 AM IST

সর্বনাশের কারবারে সর্বস্বান্ত মানুষ। কেন্দ্র, রাজ্য কার অধিকার, কোন আইনে কী হবে, তা বুঝে ওঠা দায়। বহু আগে থেকেই রাজ্য সরকারকে সতর্ক করা হয়েছিল। সতর্ক করেছিল আয়কর দফতর। তার ওপর ভিত্তি করেই নির্মিত হয়েছিল একটি সিনেমা। আগামী দশই মে তা মুক্তি পাচ্ছে।  তার আগেই ঘটে গিয়েছে বিপর্যয়।
রাজ্যকে বলা সত্ত্বেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাই আয়কর দফতর একটু ঘুরপথে উদ্যোগ নিয়েছিল। এগিয়ে এসেছিল একটি বেসরকারি সংস্থা। চিটফান্ডের বিরোধিতা করে শুরু হয়েছিল একটি সিনেমা।
এই ছবির পরতে পরতে দেখানো হয়েছে কীভাবে মানুষকে বোকা বানানো হয়।
সিনেমা মুক্তি পাওয়ার আগেই অবশ্য সর্বনাশ ঘটে গিয়েছে।
আদতে এই টাকা অন্য জায়গায় এমন ভাবে বিনিয়োগ করা হয়, যাতে অভিযুক্তরা ধরা পড়লেও, টাকা ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে খুবই কম।
তার থেকেও মারাত্মক সর্বনাশের কথা বলা হয়েছে এই ছবিতে।
বাস্তব তথ্যের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত এই সিনেমায় সমকালীন সবচেয়ে বড় সামাজিক সমস্যার কথা বলা হয়েছে।
চিটফান্ডের বিরুদ্ধে সচেতন করার জন্যই এত উদ্যোগ। সিনেমার উদ্বোধন করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে খোদ মুখ্যমন্ত্রীকে।