আডবাণীর আর্শীবাদ নিয়ে নির্বাচনী ব্যাটন মোদীর হাতে

Last Updated: Sunday, June 9, 2013 - 14:52

এতদিন যেটা ছিল জল্পনা, গুঞ্জন, আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে, সেটাই রবিরারের বারবেলায় গোয়ার সমুদ্রসৈকত্যে সিলমোহর পেয়ে গেল। মোদীতেই ভরসা পেল বিজেপি। জল্পনা আর সমালোচনার অবসান। ২০১৪ নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টিকে নেতৃত্ব দেবেন নরেন্দ্র মোদী। গোয়ায় দু'দিনের বৈঠক শেষে বিজেপি সহাপতি রাজনাথ সিং ঘোষণা করেন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রচার সমিতির দায়িত্বে থাকবেন মোদী।
নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পরই আডবাণীর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন নরেন্দ্র মোদী। টুইট করে তিনি জানান, "ফোনে আডবাণী জীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি আমাকে আর্শীবাদ করেছে। তাঁর আর্শীবাদে আমি সম্মানিত।"
বৈঠক শেষে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে রাজনাথ বলেন, "গোটা দেশ বিজেপির দিকে তাকিয়ে রয়েছে। আমাদের নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। নির্বাচনে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য মোদীই যোগ্য নেতা।'' মোদীকে সবচেয়ে জনপ্রিয় মুখ্যমন্ত্রী বলেই মন্তব্য করেছেন বিজেপি সভাপতি। সাংবাদিক সম্মেলনে রাজনাথ সিং দলের অন্দরে অবস্থা স্পষ্ট করার চেষ্টা করেছেন, ''গুজরাত মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নির্বাচনী সমিতির সভাপতি করা হল। সকলের সহমতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমরা ২০১৪ নির্বাচনে জয়ী হবই।"
মোদী মন্ত্রে মুগ্ধ বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব দেরি করেনি তাঁকে বরণ করে নিতে। অরুণ জেটলি, সুষমা স্বরাজরা মঞ্চে উঠে মোদীকে মালা পড়ান। সাংবাদিক সম্মেলনেও রাজনাথের পাশে ছিলেন সুষমা, অরুণ, বেঙ্কাইয়া নায়ডুরা। চেষ্টা দলীয় ঐক্যকে সামনে রাখা।   
বৈঠকে মোদী নেতৃত্বে কার্যত সহমত জানিয়েছেন সকলেই। ফলে অন্য বিকল্প নিয়ে আলোচনা ফুরসত পাননি কেউই। প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে কংগ্রেস শিবিরও। মোদীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক দিগ্বিজয় সিং। তবে নরেন্দ্র দামোদর মোদীর সঙ্গে রাহুল গান্ধীর তুলনা টানতে রাজি নন তিনি।
শুধু মোদীকে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী করার দৌড়ে এগিয়ে রাখাই নয়, ২০১৩ বিজেপি কার্যসমিতির বৈঠকে তাৎপর্য রয়েছে আরও একটি। তাঁর রাজনৈতিক কেরিয়ারে এই প্রথম কার্যসমিতির বৈঠকে নেই লৌহপুরুষ লালকৃষ্ণ আডবাণী। নেই যশবন্ত সিনহা, উমা ভারতী, যশবন্ত সিং-রাও।



First Published: Sunday, June 9, 2013 - 19:08


comments powered by Disqus