মধ্যযুগীয় বর্বরতা সাক্ষী থাকল ছত্তিসগড়, মারধর করে মহিলাকে সবার সামনে নগ্ন প্যারেডে বাধ্য করা হল

মধ্যযুগীয় বর্বরতার জঘন্য নিদর্শন দেখতে পাওয়া গেল ছত্তিসগড়ের চম্পা জেলায়। এক মহিলাকে মারধর করে নগ্ন অবস্থায় হাঁটতে বাধ্য করা হল। তাঁর `অপরাধ`? ওই মহিলার ছেলে গ্রামের বর্ধিষ্ণু এক পরিবারের মেয়ের সঙ্গে পালিয়ে গেছে।

Updated: Mar 21, 2014, 11:46 AM IST

মধ্যযুগীয় বর্বরতার জঘন্য নিদর্শন দেখতে পাওয়া গেল ছত্তিসগড়ের চম্পা জেলায়। এক মহিলাকে মারধর করে নগ্ন অবস্থায় হাঁটতে বাধ্য করা হল। তাঁর `অপরাধ`? ওই মহিলার ছেলে গ্রামের বর্ধিষ্ণু এক পরিবারের মেয়ের সঙ্গে পালিয়ে গেছে।

হোলির পরের দিন জানজির ধাবরা ব্লকের ওই মহিলাকে টানতে টানতে এনে প্রথমে প্রচন্ড মারধর করা হয়। চরম নিগ্রহের শিকার হন তিনি। তাঁর পোষাক আশাক ছিঁড়ে নগ্ন করে দেওয়া হয়। তাঁকে সবার সামনে নগ্ন অবস্থায় হাঁটতে বাধ্য করা হয়। এই অমানবিক ঘটনাটি ঘটে ওই গ্রামের বাসিন্দাদের সামনেই। কিন্তু কেউই এই ঘটনার প্রতিবাদ করে ওই মহিলাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেনি।

পুলিস জানিয়েছে এখনও চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন ওই মহিলা। তিন বছর আগে তাঁর ছেলে মনোজ ওই গ্রামের এক বর্ধিষ্ণু পরিবারের মেয়ের সঙ্গে পালিয়ে গিয়ে তাকে বিয়ে করে। তখন থেকেই বিবিধ নিগ্রহের শিকার হতে হয়েছে ওই ভদ্রমহিলাকে।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে স্থানীয় পুলিস স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।