মেক্সিকোর ক্লাব কর্তাদের কাছে প্রায় আকাশ চেয়ে নিলেন মারাদোনা

দল প্রথম বিভাগে উঠুক বা না উঠুক, মারাদোনার পকেট কিন্তু গরম থাকবে।

Updated: Sep 14, 2018, 05:36 PM IST
মেক্সিকোর ক্লাব কর্তাদের কাছে প্রায় আকাশ চেয়ে নিলেন মারাদোনা

নিজস্ব প্রতিনিধি : কোচ হিসাবে তিনি সফল নন। তবুও তাঁর উপর অগাধ ভরসা রেখেছেন মেক্সিকোর দ্বিতীয় ডিভিশনের ক্লাব দোরাদোসের কর্তারা। তাঁদের বিশ্বাস, দোরাদোসকে একমাত্র টেনে তুলতে পারেন দিয়েগো মারাদোনা। মেক্সিকোর দ্বিতীয় ডিভিশনে ১৫টা দল খেলে। যার মধ্যে দোরাদোস ১৩ নম্বরে। মারাদোনা আচমকা সেই দলের দায়িত্ব কেন নিলেন! এই নিয়ে জল্পনা প্রচুর। কিন্তু সবার আগে যে কারণটা সামনে আসছে তা হল, দোরাদোসের থেকে অবিশ্বাস্য একটা আর্থিক প্রস্তাব পেয়েছিলেন আর্জেন্টাইন তারকা।  

আরও পড়ুন-  বড় জয় পেল ব্রাজিল, আটকে গেল আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ক্লাবের কোচ হিসাবে দায়িত্ব নিয়েই বলেছিলেন, মাদক সেবন করে জীবনের অনেকগুলো বছর অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছেন তিনি। তাই এবার তিনি আলোর খোঁজ করছেন। মারাদোনা বলেছিলেন, জীবনে অনেক ভুল করেছি। এই দায়িত্বটা আমার কাছে ছোট্ট একটা বাচ্চাকে কোলে নিয়ে ঘুরে বেড়ানোর মতো। মাদক সেবন আমাকে অনেক পিছিয়ে দিয়েছে। ফুটবল এখন সামনে এগোনোর মন্ত্র। ১১ মাসের চুক্তি তাঁর। দোরাদোসকে প্রথম বিভাগে ওঠানোই তাঁর আসল লক্ষ্য। এবারের লিগে প্রথম ছয় ম্যাচে একটাও জয় পায়নি দোরাদোস। ফলে তাদের প্রথম বিভাগে ওঠার সম্ভাবনা ক্ষীণতম।

আরও পড়ুন-  ঋষভ, ধোনির যোগ্য উত্তরাধিকারী : সেওয়াগ

দল প্রথম বিভাগে উঠুক বা না উঠুক, মারাদোনার পকেট কিন্তু গরম থাকবে। প্রতি মাসে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২ কোটি টাকা বেতমন পাবেন তিনি। তবে মারাদোনা এটুকুতেই সন্তুষ্ট হচ্ছেন না। আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম ইনফোবে জানাচ্ছে, প্রতিপক্ষের মাঠে প্রতিটি ম্যাচে পৌঁছনোর জন্য একটা ব্যক্তিগত বিমান চেয়েছেন মারাদোনা। এছাড়া তিনি চেয়েছেন, মেক্সিকোর সিনালোয়া রাজ্যের কুলিয়াচানের অভিজাত এলাকা লা প্রিমাভেরায় একটা বিলাসবহুল বাড়ি, যাতে থাকবে বিরাট সুইমিংপুল। এক কথায়, প্রায় আকাশ চেয়ে বসেছেন তিনি। তবে আপাতত তিনি সেই বাড়িতে ঢুকতে পারেননি। কারণ, সেই অঞ্চলের মানুষ নাকি তাঁকে প্রতিবেশী হিসাবে চান না। তাই মারাদোনা আপাতত এক বিলাসবহুল হোটেলে রয়েছেন। 

আরও পড়ুন-  গায়ে শাড়ি, মাথায় টিপ! বৃহন্নলার সাজে গৌতম গম্ভীর

মেক্সিকো আসার আগে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আল-ফুজাইরা ও আল-ওয়াসল ক্লাবে কোচ হিসাবে কাজ করেছেন মারাদোনা। কিন্তু সেখানেও তিনি সফল নন।