হোটেলের ঘরে এসিতে আগুন, বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মুখ্যমন্ত্রী

বড়সড় বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনী প্রচারে তিনি এখন মালদায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর হোটেলের ঘরের এসি মেশিনে আগুন লাগে। ধোঁয়ায় ভরে যায় ঘর। সাময়িক অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। অগ্নিকাণ্ডের তদন্তের দাবি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনে চিঠি পাঠিয়েছে তৃণমূল। ঘটনায় উদ্বেগপ্রকাশ করেছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু, বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র, কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য। আগুনের হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রচারে মালদায় রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই একটি বেসরকারি হোটেলে রয়েছেন তিনি।

২৪ ঘণ্টা পেরিয়েও সন্তানের মৃতদেহ আঁকড়ে ধরে রাখল হাতি মা

পেরিয়ে গেছে চব্বিশটা ঘণ্টা। তবুও সন্তানের মৃতদেহ ছাড়ল না মা হাতি। আগুন জ্বালিয়ে ভয় দেখানো হল। হুলা ছুঁড়ে আতঙ্ক তৈরির চেষ্টা হল। তবু পিছু হঠল না মা। পরম মমতায় আগলে রাখল মৃত সন্তানের দেহ। শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ বনকর্মীরাও। সন্তানের মৃতদেহ নিয়েই গভীর জঙ্গলে ফিরে গেল মা। হাতি-মায়ের এমন সন্তানপ্রেমের সাক্ষী থাকলেন বাঁকুড়ার মেজিয়া রেঞ্জের বাঘমারা স্রোত এলাকার বাসিন্দারা। । সময়ের আগেই ভূমিষ্ঠ হয়েছিল সন্তান। শারীরিক দুর্বলতার কারণে জন্মের কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু হয় সদ্যোজাতের। কিন্তু সন্তান বিয়োগের শোক মেনে নিতে পারেনি মা-হাতি। একটানা চব্বিশ ঘণ্টা মৃত সন্তানের দেহ আগলে রাখল মা।