পোস্তায় উড়ালপুল বিপর্যয়ের পুলিসি তদন্তে গড়িমসির অভিযোগ

পোস্তায় উড়ালপুল বিপর্যয়ের পুলিসি তদন্তে গড়িমসির অভিযোগ

পোস্তায় উড়ালপুল বিপর্যয়ের পুলিসি তদন্তে গড়িমসির অভিযোগ। মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালকে দেওয়া লালবাজারের একটি চিঠিতে সেই অভিযোগ এবার আরও জোরাল হল। একতিরিশে মার্চ পোস্তায় ভেঙে পড়েছিল নির্মীয়মান উড়ালপুলের একাংশ। ঘটনার প্রায় দেড়মাস  পর, আহতদের বিবৃতি নেওয়ার জন্য, হাসপাতালের কাছে নথি চেয়ে চিঠি দিয়েছে লালবাজার। কলকাতা পুলিসের ডিটেকটিভ ডিপার্টমেন্টের তরফে দশই মে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে একটি চিঠি দেওয়া হয়। ওই চিঠিতে ব্রিজ বিপর্যয়ে জখম দশজনের নাম উল্লেখ করে, তাঁদের চিকিত্‍সার অরিজিনাল নথি চেয়ে পাঠিয়েছে পুলিস। ওই দশজন আহতের মধ্যে কয়েকজন নির্মাণকর্মীও আছেন। পুলিসের উল্লেখ করা দশজনের বাইরে যদি কোনও আহতের তথ্য হাসপাতালের কাছে থেকে থাকে, তাও চেয়ে পাঠিয়েছে লালবাজার।

ভেঙে পড়ল নির্মীয়মান মেট্রোর পিলার, মৃত ১ ভেঙে পড়ল নির্মীয়মান মেট্রোর পিলার, মৃত ১

  দিন পনেরো আগের কথা। হঠাত্‍ই কলকাতার পোস্তা এলাকার ব্যস্ত রাস্তায় ভেঙে পড়েছিল নির্মীয়মান উড়ালপুল। সেই উড়ালপুলের নিচে চাপা পড়ে প্রাণ হারিয়েছিলেন ২৭ জন। এতটা ভয়াবহ না হলেও রবিবার সকালে পোস্তার ছবিই দেখল লখনউয়ের আলমবাগ। ভেঙে পড়ল নির্মীয়মান মেট্রোর পিলার।  

৩ সপ্তাহের মধ্যে উড়ালপুর সংক্রান্ত তথ্য তলব কলকাতা হাইকোর্টের ৩ সপ্তাহের মধ্যে উড়ালপুর সংক্রান্ত তথ্য তলব কলকাতা হাইকোর্টের

পোস্তা ফ্লাইওভার দুর্ঘটনা নিয়ে ৩ সপ্তাহের মধ্যে রাজ্যের রিপোর্ট তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট। ফ্লাইওভার তৈরিতে কী ধরণের কাঁচামাল ব্যবহার করা হয়েছে? নকশায় ত্রুটি থাকাতেও কী করে ফ্লাইওভার তৈরির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল? এরকম একাধিক প্রশ্ন তুলে হাইকোর্টে ৪টি জনস্বার্থ মামলা হয়। দাবি জানানো হয় সিবিআই তদন্তের। ৪টি মামলা একসঙ্গেই শোনেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি মঞ্জুলা চেল্লুর। ৩ সপ্তাহের মধ্যে উড়ালপুর সংক্রান্ত তথ্য তলব করেছে কলকাতা হাইকোর্ট।

ফোকাস নষ্ট না করে নীরব অবজ্ঞাতেই বিজেপির অভিযোগের জবাব মুখ্যমন্ত্রীর ফোকাস নষ্ট না করে নীরব অবজ্ঞাতেই বিজেপির অভিযোগের জবাব মুখ্যমন্ত্রীর

ভোটপ্রচারে মোদীর বিরুদ্ধে নীরবই রইলেন মমতা। দুর্নীতি থেকে সিন্ডিকেট। একের পর এক ইস্যুতে দিনভর মুখ্যমন্ত্রীকে তুলোধনা করলেন প্রধানমন্ত্রী। পাল্টা হামলা তো দূরের কথা, বিজেপির নামই কার্যত মুখে তুললেন না তৃণমূল নেত্রী। তাঁর নিশানায় শুধুই জোট।   

এখনও ঝুলে রয়েছে ভেঙে পড়া উড়ালপুলের একটা অংশ এখনও ঝুলে রয়েছে ভেঙে পড়া উড়ালপুলের একটা অংশ

এখনও ঝুলে রয়েছে ভেঙে পড়া উড়ালপুলের একটা অংশ। কিন্তু, কবে সরানো যাবে ওই অংশটি? সঠিকভাবে জানাতে পারছে না KMDA বা রেল বিকাশ নিগম। আশপাশের বাড়ির লোকজনকে না সরিয়ে কীভাবে এই কাজ সম্ভব?  ভেবে পাচ্ছেন না কর্তারা। ঠাঁই ছাড়তে নারাজ বাসিন্দারাও।

সেতুর নিচ থেকে লরি সরাতে বিশেষ কৌশল নিচ্ছেন ইঞ্জিনিয়াররা সেতুর নিচ থেকে লরি সরাতে বিশেষ কৌশল নিচ্ছেন ইঞ্জিনিয়াররা

বিবেকানন্দ সেতুর নিচ থেকে লরি সরাতে বিশেষ কৌশল নিচ্ছেন ইঞ্জিনিয়াররা। নীল-সাদা কাপড়ে ঘিরে উদ্ধারকাজ চলছে পোস্তায়। খুলে দেওয়া হয়েছে রবীন্দ্র সরণি। অভিযুক্ত নির্মাণ সংস্থা IVRCL -এর কর্তা তন্ময় শীলকে ১১ দিনের পুলিস হেফাজতে পাঠাল আদালত।

মন্দিরের ওপর পড়েছিল স্ল্যাব, কিন্তু অক্ষত মন্দিরের সব বিগ্রহ, অক্ষত পূজারি মন্দিরের ওপর পড়েছিল স্ল্যাব, কিন্তু অক্ষত মন্দিরের সব বিগ্রহ, অক্ষত পূজারি

মন্দিরের ওপর পড়েছিল স্ল্যাব। ভেঙে পড়েছে বারান্দা। ফাটল ধরেছে বাড়ির দেওয়ালেও। কিন্তু অক্ষত মন্দিরের সব বিগ্রহ। অক্ষত পূজারি। জোড়াসাঁকো কালীমন্দিরের প্রত্যেকের মুখেই ঈশ্বরের অশেষ আশীর্বাদের কথা। ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে অক্ষত ছিল কেদারনাথ মন্দির। আর পোস্তায় উড়ালপুল বিপর্যয়ে অক্ষত জোড়াসাঁকো কালীমন্দির।

উড়ালপুল নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভে স্থানীয় বাসিন্দারা উড়ালপুল নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভে স্থানীয় বাসিন্দারা

বিভীষিকার পর কেটে গিয়েছে ৭২ ঘণ্টা। স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টা। পোস্তায় চলছে উদ্ধারকাজ। এখনও বিপজ্জনকভাবে বিবেকানন্দ সেতুর একটা অংশ ঝুলে রয়েছে লরির ওপর। লরি সরাতে গেলে ভেঙে পড়তে পারে ওই অংশটি। তা এড়ানোর চেষ্টা চলছে।

হাত ধুয়ে ফেলতে ব্যস্ত হায়দরাবাদের নির্মাণ সংস্থা IVRCL হাত ধুয়ে ফেলতে ব্যস্ত হায়দরাবাদের নির্মাণ সংস্থা IVRCL

উড়ালপুল বিপর্যয়ে নিজেদের দায় মানতে নারাজ হায়দরাবাদের নির্মাণকারী সংস্থা IVRCL। আজও তাদের দাবি, নির্মাণ সামগ্রী যাচাই থেকে বাকি সব কাজই হয়েছে KMDA-র অনুমতি নিয়ে। এর আগে ভগবানের ইচ্ছের ওপর দায় চাপানোর পর, আজ তাদের আরেক যুক্তি, বিস্ফোরণেও তো ভেঙে পড়তে পারে উড়ালপুল!   

স্রেফ মনের তাগিদে সাহায্য করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন স্থানীয়দের অনেকেই স্রেফ মনের তাগিদে সাহায্য করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন স্থানীয়দের অনেকেই

কোনও ট্রেনিং নেই, অভিজ্ঞতাও নেই। স্রেফ মনের তাগিদে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন ওরা, জীবন বাঁচানোর লড়াইয়ে। বিবেকানন্দ উড়ালপুলের দুর্ঘটনা, কয়েক মুহুর্তে বদলে দিয়েছে ওদের জীবনটাও। কীভাবে, কী করে সাহায্য করা যায়! দিনরাত এক করে সেই চেষ্টাই করে যাচ্ছেন স্থানীয়দের অনেকেই।

সেতুর ঝুলে থাকা অংশটিকে ভাঙাই এই মুহূর্তে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ সেতুর ঝুলে থাকা অংশটিকে ভাঙাই এই মুহূর্তে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ

ঘটনার পর কেটে গিয়েছে গোটা একটা দিন। সেনাবাহিনী জানিয়ে দিয়েছে উদ্ধারের কাজ শেষ। কিন্তু সেতুর ঝুলে থাকা অংশটিকে ভাঙাই এই মুহূর্তে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ। আর ঘটনাস্থল ঘুরে ফরেনসিক দল জানিয়ে দিল, গতকালের ঘটনার সঙ্গে বিস্ফোরণ বা নাশকতার কোনও যোগ নেই।

বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি পোস্তা উড়ালপুলের নির্মাণকর্মীদের বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি পোস্তা উড়ালপুলের নির্মাণকর্মীদের

বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি পোস্তা উড়ালপুলের নির্মাণকর্মীদের। ভেঙে গিয়েছিল উড়াল পুলের ক্যান্টিলিভারের দুটি নাট। তাদের দাবি, ঝালাই দিয়ে কাজ চালিয়ে নিতে বলেন দায়িত্বে থাকা ইঞ্জিনিয়ার। তার পরেই ঘটে যায় বিপত্তি।

কী ভাবে ভেঙে পড়ল পোস্তা উড়ালপুল? কী ভাবে ভেঙে পড়ল পোস্তা উড়ালপুল?

কী ভাবে ভেঙে পড়ল পোস্তা উড়ালপুল? কেন ঘটল এই বিপর্যয়? উত্তর খুঁজতে গ্রাউন্ড জিরোয় ২৪ ঘণ্টা। 

বিপর্যয় মোকাবিলায় রাজ্য অক্ষম, দেখিয়ে দিল পোস্তার বিপর্যয়ের ঘটনা বিপর্যয় মোকাবিলায় রাজ্য অক্ষম, দেখিয়ে দিল পোস্তার বিপর্যয়ের ঘটনা

প্রশিক্ষণ নেই। নেই অভিজ্ঞতা। নেই প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও। এমনকি জানা নেই ভিড় নিয়ন্ত্রণের কৌশল। সেকারণেই গতকাল ভেঙে পড়া উড়ালপুলে উদ্ধার কাজ শুরু করতে সময় লেগে যায় আড়াই ঘণ্টা। বেহাল দশা ধরা পড়ে সেনা জওয়ানেরা উদ্ধার কাজ শুরুর পর। বিপর্যয় মোকাবিলায় রাজ্য যে অক্ষম, তা দেখিয়ে দিল পোস্তার গতকালের ঘটনা।

উড়ালপুল দুর্ঘটনা নিয়ে সেলিব্রিটিদের প্রতিক্রিয়া উড়ালপুল দুর্ঘটনা নিয়ে সেলিব্রিটিদের প্রতিক্রিয়া

কলকাতার বুকে অভিশপ্ত একটা দিন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা। ভেঙে পড়ল পোস্তা ও নিমতলাঘাট সংযোগকারী বিবেকানন্দ উড়ালপুল। মুহূর্তের একটা ঘটনা কেড়ে নিল ২৫টা প্রাণ। হয়ত সংখ্যাটা আরও বাড়বে। কিছু মানুষের গাফিলতির নির্মম বলি হতে হল সাধারণ মানুষকে। কলকাতার বুকে ঘটে যাওয়া এই দুর্ঘটনাকে ধিক্কার জানিয়ে সরব হয়েছেন সেলিব্রিটিরা। এই চরম গাফিলতির নিন্দা করেছেন  অমিতাভ বচ্চন থেকে প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায় সকলেই।

কান ঘেঁষে চলে গেছে মৃত্যু, কিন্তু আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না কান ঘেঁষে চলে গেছে মৃত্যু, কিন্তু আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না

কান ঘেঁষে চলে গেছে মৃত্যু। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ফারাক। রাস্তায় ট্রাফিক সিগন্যালের এপার আর ওপার। তাই বাঁচিয়ে দিল প্রাণ। পোস্তার বাসিন্দা রাজকুমার সোনকার এবং তাঁর ভাই মানব মালিক এখনও ভেবে পাচ্ছেন না, কী করে মৃত্যুকে এড়ালেন তাঁরা!