জোকার হাসির চিরস্থায়ী বন্দোবস্তে ঝুঁকছেন কোরিয়ান মহিলারা

হাসি মুখ কার না প্রিয়। কিন্তু অন্যকোনও আবেগের সঙ্গী না হয়ে মুখ যদি শুধু মাত্র হাসির সঙ্গী হয়? মনে তীব্র যন্ত্রণা, কিন্তু মুখের অক্ষুণ্ণ হাসি যদি সেই যন্ত্রণার বাহ্যিক প্রকাশকে আটকে রাখে? তাহলে কেমন হয়? তাহলে ভাল বা খারাপ কেমন হয় জানা না থাকলেও চিরস্থায়ী হাসি মুখের ব্যবস্থা কিন্তু করে ফেলাই যায়। আর সেটাই করছেন দক্ষিণ কোরিয়ার মহিলারা। নতুন সার্জারি মাধ্যমে মুখের হাসিটাকে সব সময়ের জন্য বজায় রাখার নয়া ট্রেন্ডে মেতেছেন তাঁরা। `জোকার স্মাইল` দেখার জন্য আর সার্কাসের ভরসা না করে নিজেদের মুখেই বসিয়ে নিচ্ছেন তাঁরা।