হোম কোয়ারেন্টাইনে কীভাবে কাটছে 'রাণী রাসমণি' দিতিপ্রিয়ার?

 কীভাবে কাটছে সকলের প্রিয় 'রাণী রাসমণি'র গৃহবন্দি জীবন? সেকথা Zee ২৪ ঘণ্টা ডট কমকে জানালেন দিতিপ্রিয়া।

Reported By: রণিতা গোস্বামী | Edited By: রণিতা গোস্বামী | Updated By: Apr 5, 2020, 11:52 PM IST
হোম কোয়ারেন্টাইনে কীভাবে কাটছে 'রাণী রাসমণি' দিতিপ্রিয়ার?

রণিতা গোস্বামী: করোনার জেরে গোটা দেশে লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে বলি থেকে টলি সব তারকাই প্রায় গৃহবন্দি। একই অবস্থা টেলি দুনিয়ার জনপ্রিয় তারকা দিতিপ্রিয়া রায়ের। কীভাবে কাটছে সকলের প্রিয় 'রাণী রাসমণি'র গৃহবন্দি জীবন? সেকথা Zee ২৪ ঘণ্টা ডট কমকে জানালেন দিতিপ্রিয়া।

কী করছো, কীভাবে সময় কাটাচ্ছো?

দিতিপ্রিয়া-  দেখো, সবসময়ই তো ব্যস্ত থাকি। পরিবারের লোকজনের সঙ্গে সময় কাটানোর তো সুযোগ প্রায় হয় না বললেই চলে। এখন বেশ অনেকটা সময় পেয়েছি। নেটফ্লিক্সে বিভিন্ন ওয়েব সিরিজ দেখছি। ছবি আঁকছি। ছবি আঁকাটা আমার খুব পছন্দের। তারপর বইও পড়ছি বিভিন্ন রকম। 

বাড়িতে পরিচারিকা তো নিশ্চয় আসছেন না। বাড়ির কাজকর্ম কে করছেন?

দিতিপ্রিয়া-  রান্নাবান্না তো আমি একেবারেই করতে পারি না। ওটা মা-ই করছে অন্যান্য কাজে আমি মাকে সাহায্য করছি। দেখোনা, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা তো আমার একটা সাবজেক্ট এখনও বাকি। কী জানি, কবে হবে? কোনও সিদ্ধান্ত তো শুনিনি। (কিছুটা উদ্বিগ্ন হয়ে)।

তোমার তো অনেক বন্ধুবান্ধব, তাঁদের সঙ্গে ভিডিয়ো কলে কথা হচ্ছে?

দিতিপ্রিয়া-  আমি আসলে খুব একটা ফোন নিয়ে সময় কাটাতে পছন্দ করি না। বাইরে থাকলে তো সেই ফোন নিয়েই কাটাতে হয়। তাই বাড়িতে ফোন যতটা সম্ভব কম ব্যবহার করার চেষ্টা করি। এই পুরো কোয়ারেন্টাইনের সময়টায় গতকালই (শনিবার) প্রথম বন্ধুদের সঙ্গে ভিডিয়ো কলে কথা হয়েছে। অবশ্য হোয়াটসঅ্যাপে সকলের সঙ্গে কথা হচ্ছিলই। তারপর প্ল্যান হল ভিডিয়োকলে সবাই কথা বলবো। আসলে আমাদের বন্ধুদের গ্রুপটা খুব বড়। ভিডিয়ো কলে ধরবে না, আমরা তো ৮-৯জন। আর সবাই না থাকলে কিছু গল্প ঠিক জমে না। তাই ভিডিয়ো কলে বিশেষ কথা হচ্ছে না। তবুও গতকাল ৪-৫জন মিলে ভিডিয়ো কলে কথা বললাম। এই আর কি...

'করুণাময়ী রাণী রাসমণি' শ্যুটিং তো বন্ধ। আর সিনেমার শ্যুটিং শেষ হয়েছে?

দিতিপ্রিয়া- হ্যাঁ, শ্যুটিং তো পুরো বন্ধ, কবে শুরু হবে জানি না। সরকার যা সিদ্ধান্ত নেবে তাই হবে। তবে ছবির (অভিযাত্রিক) শ্যুটিং শেষ হয়ে গিয়েছে। প্রমোশন আটকে। রিলিজও হয়ত পিছোবে।

আচ্ছা, প্রধানমন্ত্রী (রবিবার) রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্য যে দীপ জ্বালানোর কথা বলেছেন, সেটা কি তুমি পালন করবে?

দিতিপ্রিয়া- কী জানি কী করবো! আমি ঠিক বুঝতে পারছি না। আদৌ এটা করলে কী হবে, না হবে, কিছুই বুঝতে পারছি না। দেখি সবাই করলে করবো। (হাসি)