মহাকাশে সিনেমা বানানো নিয়েও Tug of War, শক্তি দেখাতে চায় আমেরিকা ও রাশিয়া

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাঁদের মেগাস্টার টম ক্রুজকে পাঠাচ্ছে স্পেস স্টেশনে, অন্যদিকে রাশিয়ান সুপারস্টার ইউনিয়া পেরিসলিডকে মহাকাশে পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাশিয়া।

Updated By: May 14, 2021, 02:01 PM IST
মহাকাশে সিনেমা বানানো নিয়েও Tug of War, শক্তি দেখাতে চায় আমেরিকা ও রাশিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন : আর হলিউডের স্টুডিয়োতে নয়, মহাকাশ নিয়ে এবার সিনেমার শুটিং হবে মহাকাশেই। আর একটা নয় দু-দুটো ছবির পরিকল্পনার কথা শোনা যাচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাঁদের মেগাস্টার টম ক্রুজকে পাঠাচ্ছে স্পেস স্টেশনে, অন্যদিকে রাশিয়ান সুপারস্টার ইউনিয়া পেরিসলিডকে মহাকাশে পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাশিয়া। সবমিলিয়ে সরগরম এখন সিনে দুনিয়া। শুধু অভিনেতারাই নন, যাবেন দু দেশের দুই পরিচালকও। নাসা ও রসকসমস সূত্রে এখবর জানা গিয়েছে। দুদেশেরই টার্গেট অক্টোবর মাস।

রসকসমস জানিয়েছে, রাশিয়ান ছবির শুটিংয়ের জন্য ভূপৃষ্ঠ থেকে ৩৭০ মাইল উপরে পৃথিবীর কক্ষপথে প্রদক্ষিণরত আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে পাঠানো হবে দেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় অভিনেত্রী য়ুলিয়া পেরিসলিডকে (Yulia Perislid)। অক্টোবরের গোড়ার দিকে। তাঁর সঙ্গী হবেন রাশিয়ার জনপ্রিয় চলচ্চিত্র পরিচালক ক্লিম শিপেঙ্কো (Klim Shipenco)। অন্যদিকে নাসা সূত্রের খবর, প্রায় একইসময়ে অভিনেতা টম ক্রুজকে (Tom Cruise) পাঠানো হবে পরিচালক ডগ লিম্যানের (Doug Leeman) সঙ্গে।  ওই অক্টোবরেই। এই অভিযানে সহায়তা করছেন স্পেস-এক্স সংস্থার (Space X) কর্ণধার এলন মাস্কও (Elon Musk)। রসকসমস আরও জানিয়েছে, রাশিয়ান ছবির শুটিং শুরু হতে পারে ৫ অক্টোবর।

আরও পড়ুন: মা হলেন Sonali, কোল আলো করে এল পুত্র সন্তান

মহাকাশ স্টেশনে যেখানে প্রায় শূন্য অভিকর্ষ বল (Microgravity) , সেখানে  অভিনেতা ,পরিচালকদের বাছাই কোন কোন বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে? রসকসমস  জানিয়েছে,  এই শুটিংয়ে যাঁরা অংশগ্রহণ করবেন, তাঁদের বয়স ২৫ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে।  ওজন ৫০ থেকে ৭০ কিলোগ্রামের মধ্যে রাখাতে হবে।  বুকের ছাতি  অন্তত ১১২ সেন্টিমিটার চওড়া হতে হবে। এ ছাড়াও মহাকাশ অভিযাত্রী অভিনেতা ও ক্রুয়ের  সাড়ে ৩ মিনিটে ১ কিলোমিটার দৌড়নো, ২০ মিনিটে ফ্রিস্টাইলে ১০০ মিটার সাঁতার কাটা ও ৩ মিটার উঁচু স্প্রিংবোর্ড থেকে জলে ঝাঁপ দেওয়ার মত শারীরিক দক্ষতা থাকতে হবে।

গোটা পৃথিবার বিজ্ঞানীদের মত, এবার মহাকাশে ফিল্মের শুটিং নিয়েও শক্তি প্রদর্শন করতে চাইছে বিশ্বের দুই শক্তিধর দেশ। আর বিষয়টি ভেবে সকলে রোমাঞ্চিত, কারণ এর আগে মহাকাশ নিয়ে সুপারহিট, আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রাপ্ত সব ছবিই তৈরি হয়েছে হলিউডের স্টুডিওতে সেট ফেলে। এই শুটিংয়ের কারিগরি দিক ঠিক কীরকম হবে, তাই নিয়েও অপার জিজ্ঞাসা গোটা বিশ্বের মনে।