৮২-তেও অকুতোভয়! বহু 'সহযোদ্ধা'র মৃত্যু, তবুও কোভিডের চিকিৎসায় আগ্রহী প্রবীণ চিকিৎসক

"করোনায় মৃত্যু হলে নিকট আত্মীয়দের দেখতে না পাওয়া দুর্ভাগ্যজনক। কারণ মৃত্যুর পর দেহে জীবাণুর মৃত্যু ঘটে।"

Reported By: শ্রাবন্তী সাহা | Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Aug 13, 2020, 05:23 PM IST
৮২-তেও অকুতোভয়! বহু 'সহযোদ্ধা'র মৃত্যু, তবুও কোভিডের চিকিৎসায় আগ্রহী প্রবীণ চিকিৎসক
নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : রাজ্যে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তিন চিকিৎসকের। বহু চিকিৎসক এখনও কাজ করতে ভয় পাচ্ছেন। সেখানেই নিজে কোভিডে কাজ করতে চেয়ে আগ্রহী হলেন ৮২ বছরের প্রবীণ চিকিতসক। কলকাতার বেহালার প্রবীণ চিকিৎসক ও রিসার্চার আপাতত অনলাইনে কোভিড রোগীদের পরামর্শ দিচ্ছেন।

মাস কয়েক আগে চিকিৎসক যোগীরাজের রায়ের বক্তৃতায় মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন বেহালার জ্ঞানব্রত শীল। চিকিৎসক যোগীরাজ, সত্যরূপ সিদ্ধান্ত, দেবশংকর হালদার ও অরিন্দম দাসের কোভিড কেয়ারের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন তিনি। বর্তমানে একাধিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন জ্ঞানব্রত বাবু। ছাত্রজীবন থেকেই People's Relief Committee,  Student's Health Home, Bengal Tuberculosis Association, Thalassemia Welfare Association, Thalassemia Research & Awareness Society, বিজ্ঞান চেতনার প্রচার ও মরণোত্তর দেহদানে অগ্রণী গণদর্পণ ও সহযোগীদের নিয়ে নিজের হাতে গড়েছেন Norman Bethune Janaswasthya Andolan। বর্তমানে ঠাকুরপুকুরে Saroj Gupta Cancer Centre & Research Institute-এর হয়ে বাড়িতে বসেই কাজ করছেন।

জ্ঞানব্রতবাবু মনে করেন করোনা নিয়ে আরও সচেতনতার প্রয়োজন। ছোঁয়াচে বলে মানুষ যে আচরণ করছে, তাতে সরকারের উচিৎ আরও সচেতন করা। পাশাপাশি তিনি মনে করেন, করোনায় মৃত্যু হলে নিকট আত্মীয়দের দেখতে না পাওয়া দুর্ভাগ্যজনক। কারণ মৃত্যুর পর দেহে জীবাণুর মৃত্যু ঘটে। এই ৮২ বছর বয়সেও ব্যায়াম করে নিজেকে রীতিমতো ফিট রেখেছেন জ্ঞানব্রতবাবু। তাঁর আফসোস শুধু একটাই, এত বয়স হয়ে যাওয়ায় ময়দানে নামতে পারছেন না। কিন্তু যে কোনও প্রয়োজনে সকলের ডাক্তারবাবু হয়ে থাকতে রাজি তিনি।

আরও পড়ুন, ৬৬,৯৯৯ জন রেকর্ড কোভিড পজেটিভ একদিনে! দেশে মোট আক্রান্ত ২৪ লক্ষ ছুঁইছুঁই