টিউমার ফেটে মৃত্যু ১ বছরের শিশুর, সাতদিন যন্ত্রণায় কাতরালেও ভর্তি নেয়নি SSKM

আশা ছিল কোথাও না কোথাও বেড মিলবে। তবে আশা টুকুই সার।  NRS থেকে SSKM কোত্থাও বেড মিলল না। টানা ৭দিন হাসপাতাল চত্বরেই অসুস্থ শিশুকে নিয়ে পড়ে ছিল তার বাবা-মা। টিউমার ফেটে ৭দিন কাতরাতে কাতরাতে শেষে মৃত্যু হল কালনার দেড় বছরের শিশুর।

Reported By: সুকান্ত মুখোপাধ্যায় | Updated By: Oct 12, 2020, 04:30 PM IST
টিউমার ফেটে মৃত্যু ১ বছরের শিশুর, সাতদিন যন্ত্রণায় কাতরালেও ভর্তি নেয়নি SSKM
কারও কানে পৌঁছল না মায়ের কাতর আর্তি, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু শিশুর

নিজস্ব প্রতিবেদন: আশা ছিল কোথাও না কোথাও বেড মিলবে। তবে আশা টুকুই সার।  NRS থেকে SSKM কোত্থাও বেড মিলল না। টানা ৭দিন হাসপাতাল চত্বরেই অসুস্থ শিশুকে নিয়ে পড়ে ছিল তার বাবা-মা। টিউমার ফেটে ৭দিন কাতরাতে কাতরাতে শেষে মৃত্যু হল কালনার এক বছর দু-মাসের শিশুর।

জন্মের পর থেকেই পিঠের ডানদিকে একটা টিউমার ছিল ওই শিশুর। পরিবার বলছে, চিকিৎসকরা জানিয়েছিল আড়াই বছরের আগে অপারেশন সম্ভব নয়। তবে লকডাউনের পর থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় কালনার অম্বিকা হাসপাতালে। সেখান থেকে তাঁকে রেফার করা হয় NRS-এ। সেখান থেকে পাঠানো হয় SSKM-এ। এই সময়েই শিশুর পিঠের টিউমার ফেটে পুঁজ রক্ত বেরোতে থাকে। তা নিয়েই সাতদিন SSKM-এর জরুরি বিভাগের সামনেই অপেক্ষা করে পরিবার। 

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো: ভয়ঙ্কর! মেডিক্যালে সুপারের অফিসের সামনে করোনার বর্জ্য ছিঁড়ে খাচ্ছে কুকুর

তাতেও লাভ হয়নি। বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু হয়েছে শিশুর। বাচ্চার পরিবারের দাবি, চিকিৎসকদের গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছে খুদের। ঘটনার পরই শিশুর পরিবারকে ভিতরে নিয়ে চলে যায় পুলিস। জানা গিয়েছে, পিছনের দরজা দিয়ে শিশুর দেহ এবং পরিবারকে বর্ধমানে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও গোটা ঘটনায় কোনও মন্তব্য করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।