মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে উত্তাল বিধানসভা

সংবাদপত্র ফতোয়া বিতর্কে বুধ ও বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবারও উত্তাল হল বিধানসভা। এদিন বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন তাঁর বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে ইচ্ছাকৃতভাবে কুত্সা ও অপপ্রচার চলছে।

Updated By: Mar 30, 2012, 02:53 PM IST

সংবাদপত্র ফতোয়া বিতর্কে বুধ ও বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবারও উত্তাল হল বিধানসভা। এদিন বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন তাঁর বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে ইচ্ছাকৃতভাবে কুত্সা ও অপপ্রচার চলছে। সংবাদপত্র নিয়ে সরকারি নির্দেশিকা নিয়ে বলতে গিয়ে বৃহস্পতিবারই মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, তাঁদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত হচ্ছে। শুক্রবার এই প্রসঙ্গে বিরোধীদের সরাসরি দায়ী করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করেন বিরোধীরা। সরকার ও বিরোধী পক্ষের বাগবিতণ্ডায় উত্তাল হয়ে ওঠে বিধানসভা।

শুক্রবার বিধানসভায় রীতিমতো উত্তেজিত ভঙ্গিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যজুড়ে তাঁর বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ব্যক্তিগত কুত্সার রাজনীতি চলছে। রাজ্য সরকারের উন্নয়নমূলক কাজ সহ্য করতে পারছেন না বিরোধীরা। তাই তাঁর বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত কুত্সা ও অপপ্রচার করতে নেমেছেন একদল মানুষ। তারপরই সরাসরি বিরোধীদের বিরুদ্ধে কুত্সায় মদত দেওয়ার অভিযোগ করেন তিনি। বিধানসভায় অসাংবিধানিক ও কুরুচিকর মন্তব্য করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী। বিরোধীদের উদ্দেশে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, সরকার অগণতান্ত্রিক উপায়ে চললে বিরোধীদের অনেকেই জেলে থাকতেন। তা তিনি করছেন না। প্রয়োজনে তিনি আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে সিপিআইএমের দফতরে গিয়েও বিক্ষোভ দেখাতে পারেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন মুখ্যমন্ত্রী। টিকা-টিপ্পনি ভেসে আসে ট্রেজারি বেঞ্চ থেকেও।
সংবাদপত্র ফতোয়া নিয়ে ইতিমধ্যই ঘোর দানা বেঁধে উঠেছে বিতর্ক। তীব্র প্রতিবাদ সরব হয়েছেন সাংবাদিক থেকে বুদ্ধিজীবী সবমহলই। কিন্তু এরপরও শুক্রবার বিধনসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আচরণ ফের একবার বুঝিয়ে দিল যতই প্রতিবাদ আসুক না কেন, নিজের অবস্থান থেকে সরছে না সরকার।