Alapan-র বিরুদ্ধে পদক্ষেপ কেন্দ্রের; Mamata-কে খোঁচা Suvendu-র

টুইট করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা।

Updated By: Oct 13, 2021, 06:54 PM IST
Alapan-র বিরুদ্ধে পদক্ষেপ কেন্দ্রের; Mamata-কে খোঁচা Suvendu-র

নিজস্ব প্রতিবেদন: দিল্লিতে বদলি হওয়ার পর আর 'এক্সটেনশন' নেননি। চাকরি থেকে অবসর নিয়েছেন নির্দিষ্ট সময়ে। ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠল আলাপন (Alapan Bandopadhyay) বিতর্ক। রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য এবার তদন্তকারী অফিসার নিয়োগ করল কেন্দ্র। মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) টুইট, 'আপনি যতই উঁচুতে থাকুন না কেন, আইন সর্বদা আপনার উপরে'।

২০২১-র ৩১ মে অবসর নেওয়ার কথা ছিল। রাজ্যের মুখ্যসচিব পদে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের মেয়াদ বৃদ্ধির আর্জি জানিয়ে কেন্দ্রকে চিঠি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তিন মাসের 'এক্সটেনশন'-ও পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতে  আলাপনকে যখন দিল্লিতে তলব করা হয়, তখন রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে ওঠে। এই চাপানউতোরের মাঝেই শেষপর্যন্ত নির্দিষ্ট দিনেই অবসর নেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।  অবসর নেওয়ার পর এই আইপিএস অফিসারকে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা পদে নিয়োগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন: Amit Shah on GTA: দার্জিলিং নিয়ে বৈঠক অমিত শাহর, অনুপস্থিত গুরুং-অনিত থাপারা

এদিকে বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় শোকজ করে কেন্দ্র। কেন? কেন্দ্রীয় সরকারের আন্ডার সেক্রেটারি আশিস কুমার সিংহের পাঠানো চিঠিতে উল্লেখ, প্রধানমন্ত্রী হলেন জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষের প্রধান। কলাইকুণ্ডার তাঁর সঙ্গে ইয়াস পর্যালোচনা  বৈঠকে হাজির না থেকে কার্যত বিপর্যয় মোকাবিলা আইন লঙ্খন করেছেন রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যসচিব। বলা হয়, 'বিপর্যয় মোকাবিলায় কেন তাঁর (আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা তিনদিনের মধ্যে জানাতে হবে'। শোকজের জবাবও দিয়েছিলেন আলাপন।

জানা গিয়েছে, রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিবের জবাবে সন্তুষ্ট নয় কেন্দ্র। আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল আগেই। এবার তদন্তকারী অফিসার নিয়োগ করা হল। টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে পাল্টা খোঁচা দিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

 

কলাইকুণ্ডার থাকা সত্ত্বেও মুখ্যমন্ত্রী বা মুখ্যসচিব প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাননি বলে অভিযোগ করেছিলেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য। গেরুয়াশিবিরের অভিযোগ ছিল, মুখ্যমন্ত্রী তো বটেই, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইয়াস পর্যালোচনা বৈঠকে ছিলেন না মুখ্যসচিব, এমনকী স্বরাষ্ট্রসচিবও। কয়েক ঘণ্টা পরেই  আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে বদলির নির্দেশ আসে।