হাইকমান্ডের কোর্টে বল ঠেলে মানস ইস্যু ক্লোজ করতে চায় প্রদেশ কংগ্রেস

হাইকমান্ডের কোর্টে বল ঠেলে মানস ভুঁইঞা ইস্যু ক্লোজ করতে চায় প্রদেশ কংগ্রেস। খুব শিগগিরই রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা ক'রে রিপোর্ট তুলে দেবেন অধীর চৌধুরী।  PAC চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিতে বলে মানস ভুঁইঞাকে SMS ও মেল করেছিলেন অধীর চৌধুরী। এবং তার উত্তরে মানস ভুঁইঞা যা উত্তর দিয়েছেন, সেই সংক্রান্ত নথি রাহুল গান্ধীকে দেওয়া হবে। অধীর চৌধুরী বারবার মানস ভুঁইঞাকে ইস্তফা দেওয়ার আর্জি জানালেও, সবংয়ের কংগ্রেস বিধায়ক তাতে রাজি হননি।

Updated By: Jul 18, 2016, 12:57 PM IST
হাইকমান্ডের কোর্টে বল ঠেলে মানস ইস্যু ক্লোজ করতে চায় প্রদেশ কংগ্রেস

ওয়েব ডেস্ক: হাইকমান্ডের কোর্টে বল ঠেলে মানস ভুঁইঞা ইস্যু ক্লোজ করতে চায় প্রদেশ কংগ্রেস। খুব শিগগিরই রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা ক'রে রিপোর্ট তুলে দেবেন অধীর চৌধুরী।  PAC চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিতে বলে মানস ভুঁইঞাকে SMS ও মেল করেছিলেন অধীর চৌধুরী। এবং তার উত্তরে মানস ভুঁইঞা যা উত্তর দিয়েছেন, সেই সংক্রান্ত নথি রাহুল গান্ধীকে দেওয়া হবে। অধীর চৌধুরী বারবার মানস ভুঁইঞাকে ইস্তফা দেওয়ার আর্জি জানালেও, সবংয়ের কংগ্রেস বিধায়ক তাতে রাজি হননি।

উল্টে অধীর-মান্নানদের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও PAC চেয়ারম্যান হিসেবে মিটিং সেরে ফেলেছেন তিনি।  হাইকমান্ডের নাম নিয়ে অধীর-মান্নান তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ করেছেন মানস ভুঁইঞা। সামান্য PAC চেয়ারম্যানের পদ নিয়ে কংগ্রেসের অন্দরে যে ফাটল তৈরি হয়েছে, তাতে বেজায় অস্বস্তিতে দলের রাজ্য নেতৃত্ব। মান্নান শিবির সিপিএমকে PAC চেয়ারম্যানের পদ ছেড়ে দিতে অনড়। কিন্তু মানসবাবু চান ওই পদে থেকে কাজ চালিয়ে যেতে। আর এতেই মুখ পুড়ছে কংগ্রেসের। তাই প্রদেশ নেতৃত্ব মানসের মানভঞ্জনের আশা ছেড়ে এবার রাহুলের শরণাপন্ন।  অধীর চৌধুরীর বক্তব্য, মানসবাবু এবার রাহুল-সোনিয়ার সঙ্গে কথা বলুন। কারণ এভাবে বেশিদিন চলতে পারে না।