হাবরা-হাওড়ার ঘটনায় কড়া সিদ্ধান্ত নিতে পারে কমিশন

হাবরার ও হাওড়ার ঘটনা নিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে পারে নির্বাচন কমিশন। আগামিকালই এনিয়ে বৈঠকে বসছে নির্বাচন কমিশন কমিশনের প্রতিনিধিরা। হাবড়ার ঘটনার ক্ষেত্রে জেলাশাসক, পুলিস সুপার ও বিডিও ভূমিকা খতিয়ে দেখা হবে।

Updated By: Apr 6, 2014, 09:58 PM IST

হাবরার ও হাওড়ার ঘটনা নিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে পারে নির্বাচন কমিশন। আগামিকালই এনিয়ে বৈঠকে বসছে নির্বাচন কমিশন কমিশনের প্রতিনিধিরা। হাবড়ার ঘটনার ক্ষেত্রে জেলাশাসক, পুলিস সুপার ও বিডিও ভূমিকা খতিয়ে দেখা হবে।

হাওড়ার ক্ষেত্রে জেলাশাসক ও এসপি ভূমিকা খতিয়ে দেখা হবে। আগামিকালের মধ্যে এনিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারে কমিশন। দুই ঘটনার ক্ষেত্রেই কমিশন নির্দিষ্ট পদক্ষেপ করতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

১লা এপ্রিল মধ্য হাওড়ার কাসুন্দিয়ায় তৃণমূলের ব্যানার-ফেস্টুন খুলতে গিয়ে হেনস্থার শিকার হন নির্বাচন কমিশনের হাওড়ার এক কর্মী। তাঁর নাম সৌমেন আচার্য। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ মেনে আজ কাসুন্দিয়ার বিভিন্ন সরকারি ভবন এবং ল্যাম্প পোস্ট থেকে রাজনৈতিক দলগুলির ফ্ল্যাগ-পোস্টার খুলতে যান তিনি। স্বাভাবিক ভাবেই বাদ যায়নি তৃণমূলের ব্যানার-পোস্টারও।