বৃহস্পতিবারই নতুন মেয়র, অতীন-দেবাশিসকে পিছনে ফেলে ফিরহাদ-সুব্রতর নাম নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে

পুরনিগম আইন বদলাতে বৃহস্পতিবার বিধানসভায় আনা হচ্ছে সংশোধনী।

Updated By: Nov 21, 2018, 03:33 PM IST
বৃহস্পতিবারই নতুন মেয়র, অতীন-দেবাশিসকে পিছনে ফেলে ফিরহাদ-সুব্রতর নাম নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে

 নিজস্ব প্রতিবেদন:  অতীন, দেবাশিস কিংবা মালা নয়- পুরসভার নতুন মেয়র হিসাবে উঠে এল দুই মন্ত্রীর নাম। নতুন মেয়র হিসাবে  উঠে আসছে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের নাম! উঠে আসছে সুব্রত মুখার্জির নামও। তেমনটাই খবর তৃণমূল অন্দরে।

কলকাতা পুরসভায় নতুন মেয়র নির্বাচনে তত্পরতা। পুরনিগম আইন বদলাতে বৃহস্পতিবার বিধানসভায় আনা হচ্ছে সংশোধনী। বর্তমানে কাউন্সিলর নন, এমন কারোরই মেয়র হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্তত তেমনটাই খবর তৃণমূল অন্দরে। সেক্ষেত্রে কি মেয়র হচ্ছেন ফিরহাদ হাকিম? তা নিয়ে পুরভবনে এখন জোর জল্পনা।

আরও পড়ুন: মেয়র পদে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ইস্তফা নিয়ে জল্পনা, তত্পরতা তুঙ্গে পুরভবনে

আজ মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা রয়েছে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। নিজে পুরভবনে না এসে দূত বা ইমেল মারফত ইস্তফা দেবেন বলে সূত্রের খবর।  মঙ্গলবারই দমকল ও আবাসন মন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন তিনি। তাঁর বদলে এই দুই বিভাগের এখন দায়িত্ব গিয়েছে ফিরহাদ হাকিমের হাতে।   কিন্তু এবার লাখ টাকার প্রশ্ন হল,কলকাতা পুরসভার দায়িত্ব এবার কার হাতে যেতে চলেছে? মেয়র হওয়ার দৌড়ে প্রথমে এগিয়ে ছিলেন মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার ও মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ,  চেয়ারপার্সন মালা রায়।  সেক্ষেত্রে অনেকগুলো প্রশ্ন উঠে আসছিল। কারণ সম্প্রতি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের অনুপস্থিতিতে পুরসভার কাজের দেখভাল করতেন খলিল আহমেদ।  

আরও পড়ুন, রাতের কলকাতায় তরুণীকে ধর্ষণ-খুনের চেষ্টা অটোচালকের

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত আস্থাভাজন ছিলেন শোভন। ১৯৮৫ সালে তিনি কাউন্সিলর হন। পুরসভা নিয়ে তাঁর মতো অভিজ্ঞতা অনেক কম লোকেরই রয়েছে। তাঁর আমলে কলকাতা পুরসভার বহু উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। ২০১৫ সালে পুরনির্বাচনেও সুফল পেয়েছে তৃণমূল।  সেক্ষেত্রে শোভনের পরিবর্তে কোনও দক্ষ লোককেই মেয়র করতে চান মুখ্যমন্ত্রী।

বর্তমান কাউন্সিলরদের কাউকে নয়, হেভিওয়েট কাউকেই মেয়র করতে চান মুখ্যমন্ত্রী। মঙ্গলবারই ফিরহাদ হাকিমকে ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন  বলে সূত্রের খবর।  গত ৬ মাসে খলিল আহমেদকে পুরসভার বিভিন্ন কাজ ফিরহাদ হাকিমের পরামর্শ  নিয়ে করার নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ফিরহাদ হাকিম  দীর্ঘদিন কাউন্সিলর হিসেবে কাজ করেছেন। সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চান মুখ্যমন্ত্রী। সেক্ষেত্রে পুরনিগম আইনে  পরিবর্তন আনতে চলেছে  রাজ্য সরকার। মেয়র হিসেবে উঠে আসছে সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নামও। কিন্তু, সুব্রত মুখোপাধ্যায় নিজে মেয়রের দায়িত্বভার নিতে আর রাজি নন বলে শোনা যাচ্ছে।