"চেয়ারে বসা নয়, দায়িত্ব পালন-ই প্রথম ও প্রধান", বললেন ফিরহাদ

"দলের একটা নিয়ম আছে। সেই নিয়মে মমতা ব্যানার্জি আমাদের কম্যান্ডার। তিনি আমাকে কখনও বলতে পারেন কার্গিলে যেতে। আমি সেটাই করব।"

Updated By: Dec 3, 2018, 01:11 PM IST
"চেয়ারে বসা নয়, দায়িত্ব পালন-ই প্রথম ও প্রধান", বললেন ফিরহাদ

নিজস্ব প্রতিবেদন : পদ নয়, তাঁর কাছে দায়িত্ব পালন-ই মুখ্য। কলকাতা পুরসভার মেয়র পদে তাঁর নির্বাচিত হওয়া, সময়ের অপেক্ষা মাত্র। তার আগেই জি ২৪ ঘণ্টাকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাতকারে একথা বললেন কলকাতা পুরসভার ভাবী মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

হাইকোর্ট মেয়র নির্বাচনে স্থগিতাদেশ দেয়নি। তাই পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী এদিন বেলা ১ টা থেকে শুরু ভোটগ্রহণ। ভোটগ্রহণ চলবে বেলা আড়াইটে পর্যন্ত। ৩ টেয় ফল ঘোষণা। আর তারপরই কলকাতা পুরসভার মেয়র হিসেবে শপথ নেবেন ফিরহাদ হাকিম। এদিন সকাল থেকেই বহু মানুষ ভিড় জমাতে শুরু করেন ভাবী মেয়রের বাড়িতে। বাড়িতে কাকা, কাকিমাকে প্রণাম সেরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পৌঁছে যান ফিরহাদ হাকিম। জানান, দলনেত্রীর আশীর্বাদ নিয়েই পুরসভায় পা রাখবেন তিনি।

কলকাতা পুরসভার মেয়র পদের ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে। একদিন এই চেয়ারে বসেছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু, চিত্তরঞ্জন দাসের মতো স্বাধীনতা সংগ্রামীরা। সেই প্রসঙ্গ উঠতেই ভাবী মেয়র বলেন, তিনি পুরমন্ত্রী। ফলে খুব স্বাভাবিকভাবেই পুরমন্ত্রী হিসেবে রাজ্যের সকল পুরসভা ও মেয়রদের কাজ দেখভাল করা তাঁর দফতরের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। কিন্তু, সব পুরসভার মধ্যে কলকাতা পুরসভার বিষয়টা একটু অন্য। ফিরহাদ হাকিম বলেন, যে চেয়ারে একদিন সুভাষচন্দ্র বসু, চিত্তরঞ্জন দাসের মতো মহান মানুষেরা বসেছেন, তার একটা আলাদা গরিমা আছে। সেই চেয়ারের পূর্ণ মর্যাদা রাখার তিনি প্রাণপণ চেষ্টা করবেন। এরপরই তিনি বলেন, "চেয়ারে বসা না বসা নয়। দায়িত্ব পালন-ই আমার কাছে প্রথম।"

চেয়ারপার্সন মালা রায়ের নেতৃত্বে এদিন সম্পন্ন হবে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া। নির্বাচন উপলক্ষে ইতিমধ্যেই সেজে উঠেছে পুরসভার অধিবেশন কক্ষ। ফুলের গেট বসানো হয়েছে দরজায়। কোন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অধিবেশন কক্ষের কোথায় বসবেন, তা নির্দিষ্ট করেও লিখে দেওয়া হয়েছে। নতুন মেয়রকে স্বাগত জানাতে পুরোপুরি প্রস্তুত পুরভবন।

আরও পড়ুন, একশো একুশ বনাম পাঁচ! কলকাতা মেয়র নির্বাচনে ফিরহাদ হাকিমের জয় সময়ের অপেক্ষা

অন্যদিকে, আজ পুরসভায় ভোটাভুটিতে আসার জন্য রবিবার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিজে ফোন করেছিলেন ফিরহাদ হাকিম। এদিনও তিনি আশাপ্রকাশ করেন, শোভন চট্টোপাধ্যায় আসবেন। বলেন, "শোভন আমাদের দলের ছেলে। আমার সঙ্গে ২৫- ৩০ বছরের সম্পর্ক।" আরও বলেন, "দলের একটা নিয়ম আছে। সেই নিয়মে মমতা ব্যানার্জি আমাদের কম্যান্ডার। তিনি আমাকে কখনও বলতে পারেন কার্গিলে যেতে। আমি সেটাই করব। শোভনকেও সেটা বলতে পারেন। দলটাই আমাদের কাছে বড়।"