এটাই অচ্ছে দিন! জামাই আদর করে দক্ষিণ কলকাতার কুখ্যাত ডনকে দলে নিলেন দিলীপ

বাম আমলে চেতলার ত্রাস ছিলেন শ্রীধর দাস।

Updated By: Nov 13, 2019, 06:21 PM IST
এটাই অচ্ছে দিন! জামাই আদর করে দক্ষিণ কলকাতার কুখ্যাত ডনকে দলে নিলেন দিলীপ

অঞ্জন রায়: সবার জন্য বিজেপির দরজা খোলা। সেই নীতিতেই এবার চেতলার এক সময়ের ত্রাস, ডন শ্রীধর দাসের হাতে গেরুয়া ঝান্ডা তুলে দিলেন দিলীপ ঘোষ। রাজ্য বিজেপির এহেন সিদ্ধান্তে দলের মধ্যেই উঠে গিয়েছে প্রশ্ন। 

বাম আমলে চেতলার ত্রাস ছিলেন শ্রীধর দাস। তোলাবাজি-সহ একাধিক মামলা রয়েছে তাঁর নামে। সেই সময় তাঁর উপরে সিপিএম নেতাদের বরাভয় ছিল বলে দাবি করেন স্থানীয়রা। কিন্তু পরিবর্তনের জমানায় শিবির বদলান শ্রীধর। ঘাসফুলে মালা রায়ের ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন। কিন্তু আগের মতো দাপট আর তাঁর নেই। সম্প্রতি শ্রীধর আবার ঘাসফুল থেকে লাফ দেন পদ্মে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকে অনতিদূরে রাসবিহারীর 'আদি দক্ষিণ কলকাতা বারোয়ারি সমিতি'র দুর্গাপুজোর দখলকে ঘিরে প্রচারে আসেন শ্রীধর। তাঁকে ব্যবহার করে পুজোটি দখলের চেষ্টা করেছিল বিজেপি। ওই পুজো কমিটির অফিসে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু যাওয়ার পর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। দুপক্ষের মধ্যে বাঁধে সংঘর্ষ। গ্রেফতার করা হয় শ্রীধর দাসকে।  

সেই শ্রীধরই আনুষ্ঠানিকভাবে বুধবার যোগ দিলেন বিজেপিতে। তাঁর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য সভাপতির প্রতিক্রিয়া, শ্রীধর আসায় দক্ষিণ কলকাতায় সংগঠন মজবুত হবে। শ্রীধরের অভিযোগ, তাঁকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দিয়েছে শাসক দল। সে কারণে এলাকার বাইরে থাকতে হচ্ছে। 

'পার্টি উইথ আ ডিফারেন্স' বলে নিজেদের দাবি করে বিজেপি। সেই দলের শ্রীধরের মতো ডনকে নেওয়ায় কতটা দলের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ থাকবে, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই উঠছে প্রশ্ন। বিজেপি নেতৃত্ব মনে করছে, দক্ষিণ কলকাতায় তৃণমূলকে বেগ দিতে শ্রীধরকে দরকার। চেতলায় ববি হাকিমকেও চ্যালেঞ্জ ছুড়তে পারেন শ্রীধর।           

আরও পড়ুন- শিক্ষকরা মার খাচ্ছেন, আমার আনন্দই হচ্ছে: দিলীপ