যাদবপুরে লাঠি চলেনি, দাবি পুলিস কমিশনারের, পুলিস কমিশনারের বিরুদ্ধে মিথ্যে বলার অভিযোগ পড়ুয়াদের

যাদবপুরে পুলিস লাঠি চালায়নি। দাবি করলেন কলকতা পুলিস কমিশনার। মিথ্যে বলছেন সুরজিৎ করপুরকায়স্থ। উল্টো অভিযোগ আনলেন ক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রীরা। যাদবপুর-কাণ্ডে ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করল কলকাতা পুলিস। ফেসবুকে কলকাতা পুলিসের তরফে বলা হয়েছে, উপাচার্য ও অধ্যাপিকাদের উদ্ধারে পুলিসকর্মীরা গেলে ছাত্রছাত্রীরা তাঁদের ঢুকতে বাধা দেন। পুলিস ন্যূনতম শক্তি প্রয়োগ করলে ছাত্রছাত্রীরা আক্রমণ করেন। হাতাহাতিতে দু-পক্ষের কয়েকজন আহত হন বলে ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে কলকাতা পুলিস।

Updated By: Sep 18, 2014, 02:41 PM IST
যাদবপুরে লাঠি চলেনি, দাবি পুলিস কমিশনারের, পুলিস কমিশনারের বিরুদ্ধে মিথ্যে বলার অভিযোগ পড়ুয়াদের

কলকাতা: যাদবপুরে পুলিস লাঠি চালায়নি। দাবি করলেন কলকতা পুলিস কমিশনার। মিথ্যে বলছেন সুরজিৎ করপুরকায়স্থ। উল্টো অভিযোগ আনলেন ক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রীরা। যাদবপুর-কাণ্ডে ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করল কলকাতা পুলিস। ফেসবুকে কলকাতা পুলিসের তরফে বলা হয়েছে, উপাচার্য ও অধ্যাপিকাদের উদ্ধারে পুলিসকর্মীরা গেলে ছাত্রছাত্রীরা তাঁদের ঢুকতে বাধা দেন। পুলিস ন্যূনতম শক্তি প্রয়োগ করলে ছাত্রছাত্রীরা আক্রমণ করেন। হাতাহাতিতে দু-পক্ষের কয়েকজন আহত হন বলে ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে কলকাতা পুলিস।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনার জের আজও অব্যাহত। নতুন বিতর্ক ছড়িয়েছে ছাত্রছাত্রীদের লেখা পোস্টার খুলে ফেলা নিয়ে। আজ সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌছনর পর দেখা যায় বিভিন্ন দেওয়াল থেকে পোস্টারগুলি খুলে-ছিঁড়ে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। ক্যামেরার সামনে পড়তেই অবশ্য বন্ধ হয়ে যায় এ কাজ। কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই সেগুলি খুলে ফেলা হচ্ছিল বলে অভিযোগ।

যাদবপুরকাণ্ডের জেরে পুলিসের বিরুদ্ধে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উপচে পড়েছে ফেসবুক, টুইটারেও। গতকালের পর আজও বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে মিছিল করার কথা একাধিক সংগঠন এবং রাজনৈতিক দলের তরফে। অরবিন্দ ভবনের সামনে ছাত্রছাত্রীদের জমায়েত হওয়ার কথা। অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বয়কট করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগের ছাত্রছাত্রীরাই। তাঁদের দাবি, প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে উপাচার্য, রেজিস্ট্রারকে। পদত্যাগের দাবিও উঠছে নানা মহল থেকে।       

চব্বিশ ঘণ্টায় বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য সিদ্ধার্থ দত্ত। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের বিক্ষোভ ওঠাতে একক সিদ্ধান্তে সেদিন পুলিস ডাকেন উপাচার্য। চব্বিশ ঘণ্টাকে একান্ত সাক্ষাত্কারে সহ উপাচার্য সিদ্ধার্থ দত্ত জানিয়েছেন, ক্যাম্পাসে পুলিস ডাকা নিয়ে সেদিন এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলে কোনও আলোচনা হয়নি। ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক, ঘটনায় তিনি মর্মাহত। জানিয়েছেন সহ উপাচার্য।