close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

‘বান্ধবী’র বাড়ি থেকে দেহ উদ্ধার, বেহালা সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দিরের প্রধান পুরোহিতের রহস্যমৃত্যু

মৃত ব্যক্তির নাম সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য (৪৭)। তিনি বেহালা সিদ্ধেশ্বরী কালীবাড়ির প্রধান পুরোহিত।

Ayan Ghoshal | Updated: Aug 26, 2019, 10:50 AM IST
‘বান্ধবী’র বাড়ি থেকে দেহ উদ্ধার, বেহালা সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দিরের প্রধান পুরোহিতের রহস্যমৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদন:  স্ত্রী দুই পুত্রসন্তান রয়েছেন।কিন্তু তিনি মাঝেমধ্যেই রাত কাটাতেন অন্য এক মহিলার বাড়িতে। সেই মহিলারও দুই ছেলে এক মেয়ে। মহিলার দাবি অনুযায়ী, তাঁর ছোটো ছেলে ওই ব্যক্তিরই ঔরসজাত। আর সেই ব্যক্তিরই রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা পর্ণশ্রীর রবীন্দ্রনগর এলাকায়। মৃত ব্যক্তির নাম সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য (৪৭)। তিনি বেহালা সিদ্ধেশ্বরী কালীবাড়ির প্রধান পুরোহিত।

 

সিদ্ধার্থ পেশায় পুরোহিত। তাঁর বাড়ি ১৬২/১ ব্রাহ্মসমাজ রোডে। সেখানেই দুই ছেলে ও স্ত্রী গৌতমীকে নিয়ে থাকতেন তিনি। প্রতিবেশী ও পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, পর্ণশ্রীর রবীন্দ্রনগরের বাসিন্দা ঝুমা রায়ের বাড়িতেও প্রায়শই রাত কাটাতেন তিনি। ঝুমারও দুই ছেলে এক মেয়ে। স্বামী বাড়িতে থাকেন না।

নিমতায় মদের ঠেকে বচসা, দাদার হাতে খুন ভাই

সিদ্ধার্থের স্ত্রী গৌতমীর বয়ান অনুযায়ী, রবিবার রাতে ঝুমা সিদ্ধার্থকে ফোন করে বাড়িতে ডাকেন। এরপরই তাঁরা খবর পান সিদ্ধার্থের মৃত্যুর খবর পান। অন্যদিকে, ঝুমার দাবি, সিদ্ধার্থ রাতে বাড়িতে আসার পর ছোটো ছেলেকে নিয়ে ঝামেলা হয়। ঝুমার দাবি, তাঁর ছোটো ছেলে সিদ্ধার্থের ঔরসজাত। এরপরই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন সিদ্ধার্থ। ঘরে গিয়ে গলায় দড়ির ফাঁস লাগিয়ে দেন। তাঁকে উদ্ধার করে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিত্সকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

যদিও সিদ্ধার্থের স্ত্রী গৌতমীর দাবি, সিদ্ধার্থকে খুন করেছেন ঝুমা ও তাঁর ছেলে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। সম্পর্কের টানাপোড়েনেই কি খুন নাকি সত্যিই আত্মঘাতী হয়েছেন সিদ্ধার্থ, তা খতিয়ে দেখছে পুলিস।