close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

নথি জটে আগামিকালও আলিপুর আদালতে রাজীব-সিবিআই জোড়া মামলার শুনানি অনিশ্চিত

এই মুহূর্তে আলিপুর আদালতে একদিকে যেমন আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন রাজীব কুমার। ঠিক তেমনই জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আর্জি জানিয়ে দ্বারস্থ হয়েছে সিবিআই-ও।

Srabonti Saha | Updated: Sep 18, 2019, 08:43 PM IST
নথি জটে আগামিকালও আলিপুর আদালতে রাজীব-সিবিআই জোড়া মামলার শুনানি অনিশ্চিত

নিজস্ব প্রতিবেদন : রাজীব নাটক অব্যাহত। অব্যাহত রাজীবের খোঁজে সিবিআই-এর তল্লাশিও। আগামিকালও আলিপুর আদালতে রাজীব কুমারের আগাম জামিনের মামলার শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, আলিপুর কোর্টে এখনও মামলার নথি এসে পৌঁছয়নি। নথি আসার কথা রয়েছে বারাসত কোর্ট থেকে। আগামিকালও নথি আসা অনিশ্চিত। কারণ, সারদা মামলার বিপুল সংখ্যক নথিপত্র ও তথ্যপ্রমাণ স্থানান্তর করা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। সেক্ষেত্রে শুক্রবারের আগে সেই নথি আসবে না বলেই সূত্রের খবর। ফলে নথি জটে ঝুলে থাকছে রাজীব মামলা। নথি না আসা পর্যন্ত আলিপুর আদালতে কোনও মামলার শুনানি হওয়াই সম্ভব নয়।

এই মুহূর্তে আলিপুর আদালতে একদিকে যেমন আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন রাজীব কুমার। ঠিক তেমনই জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আর্জি জানিয়ে দ্বারস্থ হয়েছে সিবিআই-ও। কিন্তু নথি এসে পৌঁছনো না পর্যন্ত ২টি মামলার কোনওটির শুনানি-ই সম্ভব নয় বলে জানাচ্ছেন আইনজীবীরা। প্রসঙ্গত, বারাসত আদলতে ধাক্কা খাওয়ার পর আজই আলিপুর আদালতের দ্বারস্থ হন রাজীবের আইনজীবীরা। তাঁরা আবেদন করেন, যদি সিবিআই জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানার আর্জি জানায়, তবে যেন তাঁকেও কিছু বলতে দেওয়া হয়। সেই আর্জি মেনে নিয়েছেন আলিপুর আদালতের বিচারক। রাজীব কুমারের বক্তব্য না শুনে সিবিআই-এর জামিন অযোগ্য ধারায় গ্রেফতারির আর্জির মামলা শোনা হবে না, স্পষ্ট জানিয়েছেন আলিপুর আদালতের বিচারক। কিন্তু, এর সবকিছুর জন্য আগে নথি এসে পৌঁছতে হবে।

অন্যদিকে, রাজীব কুমারকে ধরতে ভিনরাজ্যের বাঘা বাঘা অফিসারদের নিয়ে আজই বিশেষ দল গঠন করে সিবিআই। ১৪ জনের সেই দলে দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশের দুঁদে অফিসাররা রয়েছেন। দলে রয়েছেন দুজন এসপিও। এদিন দুপুরে হঠাৎই সিবিআই-এর সেই বিশেষ টিম সিজিও কমপ্লেক্স থেকে বেরয়। মনে করা হয়েছিল, ৩৪ নম্বর পার্কস্ট্রিট,  রাজীবের বাসভবনে যাবে সিবিআই-এর টিম। কিন্তু দেখা যায়, সিবিআই টিম ৩৪ নম্বর পার্কস্ট্রিটের বদলে নিজাম প্যালেসে যায়। সেখানে ১৫ মিনিট থাকার পর বেরিয়ে যান গোয়েন্দারা। তারপর ফের আবার সিজিও কমপ্লেক্সে ফিরে আসে সিবিআই টিম।

আরও পড়ুন, দেওচা-পাঁচমির কয়লাখনি উদ্বোধনে মোদীকে আমন্ত্রণ মমতার, অমিত'ভাই'-এর সঙ্গেও সাক্ষাতের ইচ্ছাপ্রকাশ

রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করতে মরিয়া সিবিআই। সম্ভাব্য সমস্ত স্থানেই চলছে তল্লাশি। এদিকে নিজাম প্যালেসে যাওয়ার জন্য আজ সিবিআই-এর টিম সিজিও কমপ্লেক্স থেকে বেরতেই তৎপরতা শুরু হয়ে যায় ৩৪ নম্বর পার্কস্ট্রিট-এও। মুহূর্তের মধ্যে পুলিস পুলিসে ছয়লাপ হয়ে যায় ৩৪ নম্বর পার্কস্ট্রিট। রীতিমতো দুর্গে পরিণত হয়ে যায় ৩৪ নম্বর পার্কস্ট্রিটের বাড়িটি।