মাঝে গণেশ, মেয়র-মেয়রপত্নী তুলকালাম

কয়েক দিন আগেই বিবাহ  বিচ্ছেদ মামলায় স্ত্রীকে মামলা চালানোর খরচ দেওয়ার জন্য শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নির্দেশ দেয় আলিপুর আদালত।

Updated By: Sep 13, 2018, 06:09 PM IST
মাঝে গণেশ, মেয়র-মেয়রপত্নী তুলকালাম

নিজস্ব প্রতিবেদন : গণেশ পুজোকে কেন্দ্র করে মেয়র সঙ্গে মেয়রপত্নীর তিক্ত সম্পর্কে যেন আরও ঘৃতাহুতি পড়ল।  শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে অনেক আগেই। স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের থেকে ডিভোর্স চেয়ে মামলা করেছেন মেয়র শোভন। খোরপোশ দাবি করে পাল্টা মামলা ঠুকেছেন রত্নাও। এই পরিস্থিতিতে এদিন গণেশ পুজোকে কেন্দ্র করে ফের বিবাদে জড়ালেন মেয়র ও মেয়রপত্নী।

এদিন পর্ণশ্রীর বাড়িতে গণেশ পুজো করেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। গণেশ পুজোর জন্য এদিন ও আগামীকাল পর্ণশ্রীর বাড়িতে মেয়েরের অফিসঘরের পাশেই একটি ঘরে বন্দোবস্ত করেন রত্না। আর তাতেই বেজায় চটেছেন মেয়র। পর্ণশ্রীর বাড়িতে এভাবে গণেশ পুজোর আয়োজন করায় স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ফের থানায় গেলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। পর্ণশ্রী থানায় স্ত্রী রত্নার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মেয়র। যদিও, রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য, গত ৬ বছর ধরে নিজের বাড়িতে গণেশ পুজো করছেন। গত বছর মেয়র নিজেও এই পুজোয় অংশগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু এ বছর মেয়র নিজেও আসেননি।

আরও পড়ুন, শিক্ষক দিবসে বিশ্বভারতীতে অধ্যক্ষ-অধ্যাপক-অধ্যাপিকাদের 'লুঙ্গি ড্যান্স'! দেখুন ভিডিও

উল্লেখ্য, কয়েক দিন আগেই বিবাহ বিচ্ছেদ মামলায় স্ত্রীকে মামলা চালানোর খরচ দেওয়ার জন্য শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নির্দেশ দেয় আলিপুর আদালত । মাসিক ৭০ হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আলিপুর আদালত। একইসঙ্গে মেয়েকেও মাসিক ৪০ হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আরও পড়ুন, মন্ত্রীর ঘরে লক্ষ্মী নিয়ে এল গণপতি! শ্রেয়া মেয়ের নাম রাখলেন ‘আদর’

শোভনের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় তাঁর ছেলেমেয়ের পড়াশোনা ও দেখভালের জন্য ৩০ লাখ টাকা শোভনের কাছে দাবি করেন। একইসঙ্গে  রত্না দাবি করেন, মামলার খরচ চালাতে গিয়ে তিনি প্রায় ১৫ লাখ টাকা খরচ করে ফেলেছেন। এখানেই আপত্তি তোলেন মেয়র। রত্নার এত টাকা খরচ করে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা লড়ার ক্ষমতা কোথা থেকে এল? আদালতের কাছে প্রশ্ন তোলেন মেয়রের আইনজীবীরা। যদিও তাতে কর্ণপাত করেনি আদালত। মেয়রপত্নীর কোর্টেই যায় বল।