সাঁইবাড়ি ঘটনার উল্লেখ করে ফেসবুকে পোস্ট বিকাশের, সূর্যকান্তকে নালিশ ক্ষুব্ধ কংগ্রেসের

এনিয়ে বিকাশবাবুর দাবি, অতীতকে অস্বীকার করে কোনও লাভ নেই। অতীতটা সত্য

Updated By: Jun 13, 2021, 09:32 PM IST
সাঁইবাড়ি ঘটনার উল্লেখ করে ফেসবুকে পোস্ট বিকাশের, সূর্যকান্তকে নালিশ ক্ষুব্ধ কংগ্রেসের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিশিষ্ট আইনজীবী ও সিপিএম নেতা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের একটি ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে মতবিরোধ তুঙ্গে উঠল কংগ্রেস-সিপিএমের। সাঁইবাড়ি হত্যা ঘটনা নিয়ে করা ওই পোস্টকে ঘিরেই জোর টানাপোড়েন শুরু দুই শিবিরে। সূর্যকান্ত মিশ্রকে নালিশ করল ক্ষুব্ধ কংগ্রেস।

আরও পড়ুন-মুকুলের সঙ্গে সখ্যতা নিয়ে খোঁচা, এবার Tathagata-র নিশানায় কৈলাস, টুইটারে আক্রমণ

উল্লেখ্য, গতকাল সিপিএম নেত্রী মীনাক্ষি মুখোপাধ্যায় ফেসবুকে সাঁইবাড়ি হত্যাকাণ্ডের উল্লেখ করে একটি পোস্ট করেন।  মীনাক্ষির পর আজ বিকাশ ভট্টাচার্য(Bikashranjan Bhattacharyya) সাঁইবাড়ি হত্যাকাণ্ড, সে নিয়ে তাঁর স্মৃতির উল্লেখ করে একটি পোস্ট করেন। তবে সেই পোস্টের নীচে লেখা রয়েছে সেই পোস্টটি আসলে কার। তবে সেটি তিনি তাঁর টাইমলাইনে শেয়ার করেছেন। ওই পোস্টে লেখা রয়েছে কংগ্রেসি গুন্ডা, কী ভাবে হামলা হয়েছিল।

বিধানসভা ভোটকে কেন্দ্র করে এখনও কংগ্রেস ও সিপিএমের জোট রয়েছে। স্বভাবিকভাবেই ওই পোস্টে ক্ষুব্ধ কংগ্রেস। ওই পোস্টকে কেন্দ্র করে সূর্যকান্ত মিশ্রর কাছে বিকাশ ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন প্রদীপ ভট্টাচার্য(Praadip Bhattacharyya)। প্রশ্ন উঠছে, বিকাশবাবুর মতো একজন অভিজ্ঞ নেতা, রাজ্যসভার সাংসদ ওই পোস্টের জন্য এই সময়টা বেছে নিলেন কেন।

আরও পড়ুন-পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়ের মাতৃ-বিয়োগ, সমবেদনা জানাতে নাকতলার বাড়িতে অভিষেক

এনিয়ে বিকাশবাবুর দাবি, অতীতকে অস্বীকার করে কোনও লাভ নেই। অতীতটা সত্য। এতে মতবিরোধের কোনও কারণ নেই। কংগ্রেসের সমর্থন নিয়ে রাজ্যসভায় গিয়েছি এটা সত্যি। তেমনি সাঁইবাড়ি নিয়ে বামপন্থীদের যে মত তা উল্লেখ করেছি। এত মতবিরোধের কোনও ব্যাপার নেই। আমি জানিনা করা ক্ষুব্ধ। যারা ক্ষুব্ধ হচ্ছেন তারা হয়তো না জানার কারণে ক্ষুব্ধ হচ্ছেন। সাঁইবাড়ির যে ঘটনা হয়েছিল তা নিয়ে অন্য একজনের লেখা শেয়ার করেছি। এর সঙ্গে বিজেপি বিরোধী যে জোটের কোনও সম্পর্ক নেই।

এদিকে, এনিয়ে প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, আমি মনে করি না পঞ্চাশ বছর আগেকার ঘটনা এই মুহূর্তে আলোচনা করার কোনও অবকাশ রয়েছে। গঙ্গা দিয়ে অনেক জল গড়িয়ে গিয়েছে। পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। আর যদি এটাই মাথায় থাকে তাহলে আমরা জোট করতে গেলাম কেন? অতীতের অনেক বিষাক্ত স্মৃতিতো সবারই আছে। সেসব ভুলেই তো নতুন বাংলা গড়ব বলে জোট করেছিলাম। 

(Zee 24 Ghanta App : দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)