প্রেসিডেন্সিতে ছাত্রভোটে ৯ বছর পর প্রত্যাবর্তন, তারুণ্যের স্পর্ধা দেখাল SFI

প্রেসিডেন্সির ছাত্র সংসদের ভোট অক্সিজেন দিল সিপিএমকে। 

Sreyashi Ganguly | Updated: Nov 14, 2019, 11:35 PM IST
প্রেসিডেন্সিতে ছাত্রভোটে ৯ বছর পর প্রত্যাবর্তন, তারুণ্যের স্পর্ধা দেখাল SFI

শ্রেয়সী গঙ্গোপাধ্যায় ও মৌমিতা চক্রবর্তী: প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে ৯ বছর পর ছাত্র সংসদের দখল নিল সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই। সেন্ট্রাল প্যানেলের সব কটি পদেই জয়ী এসএফআই প্রার্থীরা। রাজ্যে লোকসভা ভোটে বামেদের ভরাডুবির পর এসএফআই-এর ফল চমকে দিয়েছে অভিজ্ঞমহলকে। 

প্রায় আড়াই বছর ছাত্র সংসদের ভোট হচ্ছে। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের নির্বাচনের ফলের দিকে স্বভাবতই সকলের নজর ছিল। ২০১১ সালে ক্ষমতা হারানোর পর গত লোকসভা নির্বাচনে ধুয়েমুছে গিয়েছে সিপিএম। যাদবপুরের মতো কেন্দ্রেও তারা তৃতীয়। এমতাবস্থায় প্রেসিডেন্সির ছাত্র সংসদের ভোট অক্সিজেন দিল সিপিএমকে। একইসঙ্গে রাজ্যের তরুণ প্রজন্মের মনোভাবও বুঝিয়ে দিল। সভাপতি পদে এসএফআই প্রার্থী পেয়েছেন ১০৮৫ ভোট। আইসি ৬১৩। সহ-সভাপতি পদে এসএফআই ৯৯৯। আইসি ৬৪০। সাধারণ সম্পাদক পদে এসএফআই প্রার্থী ৮৪০টি ভোট। আইসি ৫৭৪টি। 

জয় নিশ্চিত হওয়ার পর লাল আবির মেখে সেলিব্রেশন করেছেন এসএফআই সমর্থকরা। উঠেছে, 'লড়াই লড়াই, লড়াই চাই। লড়াই করে বাঁচতে চাই' স্লোগান। এসএফআই-এর জয়ে টুইটারে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদকের প্রতিক্রিয়া,''প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে অসাধারণ জয়ের জন্য অভিনন্দন এসএফআই। বামপন্থী ছাত্রসংগঠনগুলির ঐক্য অ্যাজেন্ডায় অগ্রাধিকার পাবে বলে আশা করি।''     

এসএফআইয়ের রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্যের কথায়,''ছাত্রছাত্রীরা আমাদের পাশে রয়েছেন। সেটা ফলাফলেই স্পষ্ট। রাজ্য সরকার ও কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে আমরা সোচ্চার। দুই সরকারের নীতির বিরুদ্ধে মত দিয়েছেন পড়ুয়ারা। আইসি-র কোনও দিশা নেই। ওদের তাই প্রত্যাখ্যান করেছে পড়ুয়ারা।''    

আরও পড়ুন- Exclusive: একুশে তৃণমূলের পোক্ত ডিফেন্স ভাঙতে বিজেপির ছক ৪-২-৪