Suvendu: দেহরক্ষীর রহস্যমৃত্যুর তদন্তে বিরোধী দলনেতাকে ভবানীভবনে ডাক CID-র

২০১৩ সালে ১৩ অক্টোবর সকাল ১১টায় কাঁথির পুলিস ব্যারাকে মাথায় গুলি লেগে জখম হন শুভেন্দুর দেহরক্ষী শুভব্রত চক্রবর্তী ওরফে বাপি। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। 

Updated By: Sep 5, 2021, 11:58 PM IST
Suvendu: দেহরক্ষীর রহস্যমৃত্যুর তদন্তে বিরোধী দলনেতাকে ভবানীভবনে ডাক CID-র

নিজস্ব প্রতিবেদন: আড়াই বছর আগে শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) দেহরক্ষীর রহস্যমৃত্যু-কাণ্ডে কাঁথি থানায় দায়ের হয়েছে এফআইআর। ওই মামলার তদন্তে এবার বিরোধী দলনেতাকে তলব করল সিআইডি (CID)।       

সোমবার বেলা ১১টায় ভবানীভবনে হাজিরা দেওয়ার জন্য সমন পাঠানো হয়েছে শুভেন্দুকে (Suvendu Adhikari)। এই মামলায় ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকজনকে জেরা করেছেন তদন্তকারীরা। তাঁদের বয়ানের ভিত্তিতে শুভেন্দুকে ডাকা হল বলে সিআইডি সূত্রের খবর। 

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে ১৩ অক্টোবর সকাল ১১টায় কাঁথির পুলিস ব্যারাকে মাথায় গুলি লেগে জখম হন শুভেন্দুর দেহরক্ষী শুভব্রত চক্রবর্তী ওরফে বাপি। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। ওই ঘটনায় অতিসম্প্রতি শুভব্রতের স্ত্রী সুপর্ণা কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তার তদন্তভার নিয়েছে সিআইডি (CID)। অধিকারী-নিবাস শান্তিকুঞ্জ লাগোয়া বাড়িতে থাকতেন শুভব্রত। সেখানে গিয়ে তদন্তও করেছেন গোয়েন্দারা।

ঘটনা ও অভিযোগের সময়কালের ফারাক নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তুলেছেন শুভেন্দু (Suvendu Adhikari)। ঘটনায় শাসক দলের রাজনীতি রয়েছে বলে দাবি করেছিলেন তিনি। বিরোধী দলনেতা বলেছিলেন,'এফআইআরের ভিত্তিতে তৈরি হয়েছিল চূড়ান্ত চার্জশিট। ২ বছর ৮ মাস পরে কেন এফআইআর করা হল? কারণ রাজনৈতিক। ওই পরিবারের সদস্য তৃণমূলের বিধায়ক।' 

গোটা ঘটনার নেপথ্যে তৃণমূল নেত্রীর দিকেও আঙুল তুলেছেন শুভেন্দু (Suvendu Adhikari)। তিনি বলেছিলেন,'সোজাসুজি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলুন, শুভেন্দু অধিকারী তুমি আমাকে নন্দীগ্রামে হারিয়ে দিয়েছো তাই ৩ মাস বা ৬ মাস জেলে থাকতে হবে। উনি বয়সে বড়। যেদিন বলবেন তাঁর ইচ্ছাকে মর্যাদা দিয়ে ক'দিন জেলে কাটিয়ে আসব।'

আরও পড়ুন- By-Polls: ভবানীপুরে Mamata-র বিরুদ্ধে কি প্রার্থী? কটাক্ষে বিঁধলেন Rudranil

 (Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)