২১-এ জুলাই উপলক্ষে কী পরিস্থিতি শহরের?

রাত পোহালেই ২১-এর আহ্বান। ধর্মতলায় তৃণমূল কংগ্রেসের সমাবেশ উপলক্ষ্যে কলকাতায় কাতারে কাতারে মানুষের ঢল। উত্তর-দক্ষিণ থেকে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকরা এসেই চলেছেন। ম্যান ম্যানেজমেন্ট সামলাতে পথে মন্ত্রীরা। ২১-এ জুলাই। তৃণমূল কংগ্রেসের বার্ষিক বিগেস্ট শো।

Updated By: Jul 20, 2016, 09:32 PM IST
২১-এ জুলাই উপলক্ষে কী পরিস্থিতি শহরের?

ওয়েব ডেস্ক : রাত পোহালেই ২১-এর আহ্বান। ধর্মতলায় তৃণমূল কংগ্রেসের সমাবেশ উপলক্ষ্যে কলকাতায় কাতারে কাতারে মানুষের ঢল। উত্তর-দক্ষিণ থেকে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকরা এসেই চলেছেন। ম্যান ম্যানেজমেন্ট সামলাতে পথে মন্ত্রীরা। ২১-এ জুলাই। তৃণমূল কংগ্রেসের বার্ষিক বিগেস্ট শো।

সেই সঙ্গে থাকছে মমতার গরমাগরম বক্তৃতা। থাকছে তারকাদের ভিড়। আর মহানগরের রাস্তায় জনতার জোয়ার। সব মিলিয়ে একেবারে মেগা ইভেন্ট। আর এই মেগা ইভেন্টের টানেই কলকাতা যেন এখন গঙ্গাসাগর মেলার চেহারা নিয়েছে। শিয়ালদা আর কলকাতা স্টেশন যেন নামখানার জেটি। বাক্সপ্যাঁটরা নিয়ে পিলপিলিয়ে ঢুকছে তৃণমূল সমর্থকদের ভিড়।

আরও পড়ুন-২১ জুলাই-এর ভিড় এড়িয়ে কী করে গন্তব্যে পৌঁছবেন?

দলীয় কর্মী সমর্থকদের আপ্যায়নে স্টেশনে স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকছেন মন্ত্রীরা। দূরদূরান্ত থেকে আসা কর্মী সমর্থকদের নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছে দিতে ক্যাম্প খোলা হয়েছে। বিধানসভা ভোটে একক ভাবে লড়ে উত্তরবঙ্গে ভাল ফল করেছে তৃণমূল। উত্তরবঙ্গ থেকে আসা অতিথিদের আপ্যায়ণে হাজির খোদ উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী। বাইরে থেকে আসা তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের রাত্রিবাসের জন্য সল্টলেক স্টেডিয়ামে এলাহি আয়োজন। রসোই ঘরে মহাভোজের প্রস্তুতি।  

২১-এর মাহাত্ম্যে বাইশ গজের অলরাউন্ডারও রান্নাঘরে তদারকিতে লেগে পড়েছেন। উত্তর হাওড়ার শ্যামগার্ডেনে দলীয় কর্মী সমর্থকদের থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে রন্ধনশালায় তদারকিতে ব্যস্ত খোদ মন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে যখন জনস্রোতের কোলাজ, তখন ধর্মতলা চত্বর জুড়ে নিরাপত্তার কড়া বেষ্টনী। উর্দিতে ছয়লাপ শহিদ দিবসের সভামঞ্চ। একুশের সমাবেশ ঘিরে যাতে সাধারণ মানুষ অসুবিধায় না পড়েন, মন্ত্রীদের তা দেখার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।