PF Interest: PF গ্রাহকদের জন্য বড় খবর, জেনে নিন কবে পাবেন ২০২১-২২ এর সুদ...

EPFO Interest: পিএফ অ্যাকাউন্টের গ্রাহকরা চিন্তিত কারণ পিএফের সুদ এখনও তাদের অ্যাকাউন্টে পৌঁছায়নি। এমন পরিস্থিতিতে একজন পিএফ গ্রাহক ট্যুইটারে EPFO-কে ট্যাগ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এর পরে ইপিএফও তার উত্তর জানিয়েছে। কী আছে এই আপডেটে?

Updated By: Dec 7, 2022, 12:36 PM IST
PF Interest: PF গ্রাহকদের জন্য বড় খবর, জেনে নিন কবে পাবেন ২০২১-২২ এর সুদ...

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: যাদের পিএফ অ্যাকাউন্ট রয়েছে তাদের জন্য এল নতুন সুখবর। এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন অর্থাৎ EPFO-র সাত কোটি গ্রাহকের জন্য জানানো হয়েছে বড় তথ্য। জানা গিয়েছে যে অ্যাকাউন্ট যাদের রয়েছে তারা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন কারণ পিএফের সুদ এখনও তাদের অ্যাকাউন্টে পৌঁছায়নি। এমন পরিস্থিতিতে একজন পিএফ গ্রাহক ট্যুইটারে EPFO-কে ট্যাগ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এর পরে ইপিএফও তার উত্তর জানিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

কী জিজ্ঞাসা করলেন ট্যুইটার ব্যবহারকারী?

একজন ট্যুইটার ব্যবহারকারী EPFO, অর্থ মন্ত্রক এবং PMO ইন্ডিয়াকে ট্যাগ করে একটি ট্যুইট লিখেছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন 'EPFO এখনও ২০২১-২২ এর জমা হওয়া টাকার জন্য সুদ জমা করেনি। এই লুটপাট বন্ধ করুন এবং জনগণকে তাদের টাকা দিন। এটা দুঃখজনক যে এমনকি বিরোধীরাও এই বিষয়ে নীরব। ডিসেম্বর এসে গিয়েছে। সুদ দিতে না পারলে শ্রমিকদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া বন্ধ করুন’।

আরও পড়ুন: 7th Pay Commission Pension Rules: সরকারি কর্মচারীদের বড় ধাক্কা, পেনশন নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত নিল সরকার...

কী উত্তর দিয়েছে ইপিএফও?

নিকুম্ভ নামে এক ট্যুইটার ব্যবহারকারীর এই ট্যুইটের জবাব দিয়েছে EPFO। ইপিএফও তার উত্তরে লিখেছে, 'প্রিয় সদস্য, সুদ জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে এবং এটি শীঘ্রই আপনার অ্যাকাউন্টে প্রতিফলিত হবে। সুদ যখন জমা হবে তখন তা সম্পূর্ণরূপে পরিশোধ করা হবে। সুদের পরিমানের কোনও ক্ষতি হবে না’।

 

আরও পড়ুন: Aadhaar Card: আধার সম্পর্কে বড় আপডেট, না জানলে বিপদ আপনারই...

কেন দেরি হয়?

ইপিএফও-র এই উত্তরে পিএফ অ্যাকাউন্টের গ্রাহকরা বড় স্বস্তি পেয়েছেন। এখন আশা করা হচ্ছে নতুন বছরের আগেই গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টে সুদের টাকা চলে আসবে। প্রকৃতপক্ষে, PF-এর সুদ একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যায়। এর কারণে সুদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে আসতে অনেক সময় দেরি হয়। EPFO ট্রাস্ট সুদের হার ঠিক করে এবং অর্থ মন্ত্রকের কাছে তার সুপারিশ পাঠায়। সেখান থেকে অনুমোদন পেলেই এর জন্য তহবিল জোগাড় করা হয়।