বাবাকে পথে বসাল ছেলের গেম-এর নেশা! কিনল লাখ-লাখ টাকার ভার্চুয়াল গোলা-গুলি

 ওই স্মার্টফোনে তার বাবার ব্যাংকের বিবরণ এবং কার্ডের বিশদ তথ্য ছিল। ফলে তার পক্ষে কাজটা সহজ হয়ে যায়। 

Edited By: সুমন মজুমদার | Updated By: Jul 8, 2020, 04:21 PM IST
বাবাকে পথে বসাল ছেলের গেম-এর নেশা! কিনল লাখ-লাখ টাকার ভার্চুয়াল গোলা-গুলি

নিজস্ব প্রতিবেদন- ছেলের প্রবল গেমের নেশা। আর সেই নেশাই পথে বসাল বাবাকে। অনলাইনে ভার্চুয়াল যুদ্ধ করে ছেলে। আর তাই তার দরকার প্রচুর গোলা-গুলি। সেসব কিনতে ছেলের একমাত্র ভরসা বাবার ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স। আর বাবার অ্যাকাউন্ট থেকে ১৬ লাখ টাকা তুলে ভার্চুয়াল গোলা-গুলি কিনেছে ছেলে। ১৭ বছরের ছেলের এমন কাণ্ড জানার পর তার বাবা-মাও অবাক। তাঁদের দাবি, শুরু থেকে কিছুই বুঝতে পারেননি তাঁরা। ছেলের উচ্চ শিক্ষার জন্য বাবা ওই টাকা জমিয়েছিলেন। কিন্তু পুরো টাকাটাই জলে চলে গেল।

দ্য ট্রিবিউন-এর এক প্রতিবেদন জানাচ্ছে, পাঞ্জাবের ওই কিশোর লকডাউনের সময় অনলাইনে পড়াশোনার জন্য স্মার্টফোন ব্যবহার করছিল। আর তখনই অনলাইনে গেম-এর জন্য বাবার অ্যাকাউন্ট থেকে পেমেন্ট করতে থাকে সে। ওই স্মার্টফোনে তার বাবার ব্যাংকের বিবরণ এবং কার্ডের বিশদ তথ্য ছিল। ফলে তার পক্ষে কাজটা সহজ হয়ে যায়। টানা এক মাস ধরে ভার্চুয়াল গোলাবারুদ ও বন্দুক কিনেছে ওই ছেলে। এর পর ছেলেটির বাবা ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট পাওয়ার পরই আঁতকে ওঠেন। অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কাটার পর ফোনে আসা মেসেজ ডিলিট করে ফেলত ছেলে। কাজেই তার বাবা কিছু জানতে পারতেন না। এভাবেই চলছিল। ওই ছেলে আবার মায়ের প্রভিডেন্ট ফান্ড থেকেও টাকা তুলেছিল। 

আরও পড়ুন-  হকের টাকা চাইতে কুকুর লেলিয়ে দিল মালিক, কামড়ে ১৫টা সেলাই স্বপ্নার মুখে

পুলিস এই ব্যাপারে কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। জানানো হয়েছে, গেম প্রস্তুতকারক সংস্থাকে দোষারোপ করা যাবে না। কারণ ওই ছেলে ইচ্ছাকৃতভাবেই গেম-এর গোলাগুলি কিনতে টাকা খরচ করেছে। ছেলের এমন কাণ্ডের কথা জানাজানি হতেই রেগে আগুন হয়েছেন বাবা। তিনি তাঁকে দুচাকা সারানোর গ্যারাজে কাজে লাগিয়ে দিয়েছেন। রক্ত জল করে উপার্জন করা টাকা ছেলে এভাবে উড়িয়ে দেবে তা তিনি স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি। ছেলেটির বাবা একজন সরকারি চাকুরে। তাঁর পোস্টি অন্য জায়গায়। তিনি বলেছেন, ওই টাকা ছেলের উচ্চশিক্ষা ও ভবিষ্যতে চিকিতসার জন্য তিনি জমিয়েছিলেন।