বিহারে দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ শেষ, প্রথম দফার থেকে কমলো ভোটদানের হার!

নির্বাচনে সুশাসন বনাম জঙ্গলরাজ, টোপি-টিকা ফ্যাক্টর, পাকিস্তান কার্ডের মতো ইস্যু কতদূর সফল হবে? তাকিয়ে গোটা দেশ।

Updated By: Nov 3, 2020, 08:22 PM IST
বিহারে দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ শেষ, প্রথম দফার থেকে কমলো ভোটদানের হার!
ছবি-টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন: শেষ হল বিহার বিধানসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ। রাজ্যের ২.৮৫ কোটি ভোটার আজ ভোট দিলেন। রাজ্যের ৯৪ আসনে লড়াইয়ের ময়দানে ছিলেন ১৫০০ প্রার্থী। সন্ধে ৬টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৫৩.৫১ শতাংশ। গত ২৮ অক্টোবর প্রথম দফায় ভোট পড়েছিল ৫৫.৬৯। ২০১৫ সালের নির্বাচনের দ্বিতীয় দফায় ভোট পড়েছিল ৫৬.৯ শতাংশ।

আরও পড়ুন-৫ নভেম্বর বিজেপি কর্মী মদন ঘড়ুইয়ের দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত, করা হবে ভিডিয়োগ্রাফি

এই দফায় যেসব আসনে ভোট নেওয়া হয়েছে তার বেশিরভাগেই বিজেপির আধিপত্ত রয়েছে। ভোট প্রচারে এসে আজ প্রধানমন্ত্রী বলেই দিয়েছেন, বিহারের মানুষ ঠিকই করে ফেলেছে ফের এনডিএ ক্ষমতায় আসছে।

লড়াইয়ের ময়দানে আজ ছিলেন মহাজোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী তেজস্বী যাদব, লালুর অপর পুত্র তেজপ্রতাপ। তেজস্বী এবার বিজেপির সতীশ কুমারের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন রাঘোপুর আসন থেকে। ২০১০ সালে এই আসন থেকেই লালুপত্নি রাবড়ি দেবীকে হারিয়েছিলেন সতীশ।

মোদীর প্রচার কি কোনও প্রভাব ফেলবে? তেজস্বী যাদব সংবাদমাধ্যমে আজ বলেন, আমার হারানোর কিছু নেই। ভালো ইস্যুতে লড়াই করছি। ভবিষ্যতে আরও চেষ্টা করব।

গত কয়েক দিন ধরেই বিহারের ভোটের হাওয়া বেশ উত্তপ্ত। কখনও তেজস্বী তো কখনও মোদী, কখনও আবার চিরাগ পাসোয়ান তাঁর বিরোধীকে নিশানা করছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী ক্রমাগত আরজেডির শাসনকে জঙ্গলরাজ বলে কটাক্ষ করে চলেছেন। কখনও বলছেন উত্তরপ্রদেশের যুবরাজের যে দশা হয়েছে, বিহারের যুবরাজেরও সেই দশা হবে। চিরাগ পাসোয়ানতো নীতীশকে জেনারেল ডায়ার বলেও নিশানা করেছেন।

কোভিড পরিস্থিতিতে দেশে প্রথম ভোট হচ্ছে বিহারে। ভোটের সময় একঘণ্টা বেড়ে হয়েছে সকাল
সাতটা থেকে সন্ধে ছ-টা। দেড় হাজারের বদলে প্রতি বুথে থাকছে সর্বাধিক এক হাজার ভোটার। বুথে এলে সব ভোটারের দেহের তাপমাত্রা পরীক্ষা, থাকছে স্যানিটাইজার। পরপর দুবার তাপমাত্রা বেশি হলে শেষ ঘণ্টায় ভোটদান। করোনা সংক্রমিত বা আইসোলেশনে থাকলে শেষ লগ্নে ভোটদান। করোনা সংক্রমিত ও বয়স ৮০ বছরের বেশি হলে পোস্টাল ব্যালটের ব্যবস্থাও থাকছে। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ভোটকর্মী ও ভোটারদের জন্য মাস্ক বাধ্যতামূলক, সব ভোটারকে দেওয়া হবে গ্লাভসও।

এই দফায় লড়াইয়ের ময়দানে গুরুত্বপূর্ণ কারা

এবার লড়াইয়ে রয়েছেন মহাজোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী তেজস্বী যাদব। এই দফায় ভাগ্য নির্ধারণ হবে তেজস্বীর বড়ভাই তেজপ্রতাপেরও। তিনি লড়াই করছেন হাসানপুর আসন থেকে। আগে দাঁড়াতেন মহুয়া থেকে। মহুয়া থেকে লড়াই করছেন তেজপ্রতাপের স্ত্রী ঐষর্য রাই। রাজ্যের মন্ত্রী নন্দকিশোর যাদব লড়াই করছেন পাটনা সাহিব আসন থেকে। বাঁকিপুরে এবার কঠিন পরীক্ষার মুখে একাধিক বারের বিধায়ক  নিতিন নবীন। তাঁর বিরুদ্ধে লড়াই করছেন অভিনেতা শত্রঘ্ন সিনহার ছেলে লব সিনহা।

আরও পড়ুন-'কোভিড পজিটিভ', করোনায় আক্রান্ত খোদ কলকাতা মেডিকেলের অধ্যক্ষ

বিহার ভোটে বড় প্রশ্ন, বিজেপিকে সুবিধা করে দিতেই জোট ছেড়ে জেডিইউয়ের বিরুদ্ধে প্রার্থী এলজেপি-র? ষাট আসনে সংখ্যালঘু, পঞ্চাশ আসনে যাদব, চল্লিশ আসনে দলিত ভোট বড় ফ্যাক্টর। আরএলএসপি-বিএসপি-এমআইএমের জোটে, কি মহাজোটের ভোট ব্যাঙ্কে ফাটল? নির্বাচনে সুশাসন বনাম জঙ্গলরাজ, টোপি-টিকা ফ্যাক্টর, পাকিস্তান কার্ডের মতো ইস্যু কতদূর সফল হবে? দশ লক্ষ চাকরির আশ্বাসে লালুপ্রসাদের অনুপস্থিতি, দলের অন্তর্কলহ সামলাতে পারবে আরজেডি? তাকিয়ে গোটা দেশ।