ক্যাগ রিপোর্ট ঘিরে বিতর্কের মাঝেই আজ ইউপিএ বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী

প্রত্যাশিতভাবেই কম্পট্রোলর অ্যান্ড অডিটর জেনারেল বিনোদ রাইয়ের রিপোর্ট ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠল সংসদ। কোল ব্লক বণ্টন, দিল্লি বিমানবন্দর বেসরকারিকরণ এবং বিদ্যুত্‍ ক্ষেত্রের বরাতে মোট আড়াই লক্ষ কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ ঘিরে রাজধানীর রাজনৈতিক মহলে প্রবল আলোড়নের মধ্যেই আজ ইউপিএ বৈঠকে যোগ দিতে দিল্লি আসতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Updated By: Aug 21, 2012, 10:59 AM IST

প্রত্যাশিতভাবেই কম্পট্রোলর অ্যান্ড অডিটর জেনারেল বিনোদ রাইয়ের রিপোর্ট ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠল সংসদ। কোল ব্লক বণ্টন, দিল্লি বিমানবন্দর বেসরকারিকরণ এবং বিদ্যুত্‍ ক্ষেত্রের বরাতে মোট আড়াই লক্ষ কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ ঘিরে রাজধানীর রাজনৈতিক মহলে প্রবল আলোড়নের মধ্যেই আজ ইউপিএ বৈঠকে যোগ দিতে দিল্লি আসতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বহু ব্যান্ডের খুচরো বিপণনে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ অনুমোদনের নয়া কেন্দ্রীয় উদ্যোগের মাঝে ইউপিএ বৈঠকে তৃণমূল নেত্রীর এই উপস্থিতি যথেষ্ট তাত্‍পর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।
ইউপিএ সমন্বয় কমিটির বৈঠকে বুধবার হাজির থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সমন্বয় কমিটির প্রথম বৈঠকে হাজির ছিলেন রেলমন্ত্রী মুকুল রায়। সেখানে খুচরো ব্যবসায় বিদেশী বিনিয়োগ ও ফরোয়ার্ড ট্রেডিং নিয়ে তৃণমূলের আপত্তির কথা জানান তিনি। এরপর মহাকরণে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী একে অ্যান্টনি। কোনও রাজ্য না চাইলে সেখানে খুচরো ব্যবসায় বিদেশী বিনিয়োগ ও ফরোয়ার্ড ট্রেডিং কার্যকরী হবে না বলে মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। এরপর ইউপিএ সমন্বয় কমিটির বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর যোগ দেওয়া বিশেষ তাত্‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍পর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। বৈঠকে যোগ দিতে মঙ্গলবার রাতেই দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী।
ক্যাগ রিপোর্ট নিয়ে আজ উত্তাল হয় সংসদ। প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ইস্তফার দাবিতে বিরোধীদের বিক্ষোভের জেরে সাময়িকভাবে মুলতুবি করে দিতে হয় অধিবেশন। গত সপ্তাহের শুক্রবার সংসদে কয়লা ব্লক বন্টন নিয়ে রিপোর্ট পেশ করে ক্যাগ। রিপোর্ট অনুযায়ী ১ লক্ষ ৮৬ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে কয়লা ব্লক বন্টনে। তা ছাড়া দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং বিদ্যুত্ ক্ষেত্রে মোট আড়াই লক্ষ কোটি টাকার কেলেঙ্কারির রিপোর্ট দিয়েছেন ক্যাগ। গত শুক্রবার সংসদে পেশ হওয়া ক্যাগ রিপোর্ট অনুযায়ী, বিদুত্‍ ক্ষেত্রে বিভিন্ন সংস্থার ক্ষেত্রে বিভিন্নরকম শুল্ক ধার্য করা হয়েছে। এক্ষেত্রে রিলায়েন্স পাওয়ার ও টাটা গোষ্ঠীকে বিশেষ সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হয়েছে। সাসান আলট্রা মেগা পাওয়ার প্রজেক্টের জন্য প্রয়োজনের অতিরিক্ত জমি দেওয়ার পাশাপাশি তিনটি কয়লা ব্লকও বরাদ্দ করা হয়েছে ওই দুই সংস্থাকে। এর ফলে কেন্দ্রের মোট ২৯,০০০ কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ক্যাগ।

অন্যদিকে পিপিপি মডেলে গড়ে ওঠা দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দায়িত্বে রয়েছে দিল্লি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট লিমিটেড বা ডিআইএএল। ডিআইএএলের ৫৪ শতাংশের অংশীদার বেসরকারি সংস্থা জিএমআর গ্রুপ। সংসদে পেশ হওয়া ক্যাগে রিপোর্টে অভিযোগ, জিএমআর সংস্থাকে বাড়তি সুযোগ দেওয়ার ফলে সরকারের ক্ষতি হয়েছে ২৪,০০০ কোটি টাকা। কয়লা ব্লক বন্টন নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগের নিশানায় খোদ প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। সেই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর মঙ্গলবারই প্রথম সংসদের অধিবেশন হয়। আর তাই শুরুতেই ২০০৬-০৯ সময়ে কয়লামন্ত্রকের দায়িত্ব নিজে হাতে রাখা প্রধানমন্ত্রীর ইস্তফার দাবিতে  বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বিরোধী শিবির। এই ইস্যুতে বাদল অধিবেশনের শেষ কয়েদিন সংসদে অচলাবস্থা দেখা দিতে পারে বলে ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা।