DRDO-র করোনা ওষুধে সুস্থতার হার বেশি, বলছেন INMAS-এর বিজ্ঞানী

ইনস্টিটিউট অফ নিউক্লিয়ার মেডিসিন অ্য়ান্ড অ্যালাইড সায়েন্সের বিজ্ঞানী ডাক্তার সুধীর চন্দনা। 

Updated By: May 12, 2021, 12:56 PM IST
 DRDO-র করোনা ওষুধে সুস্থতার হার বেশি, বলছেন INMAS-এর বিজ্ঞানী

নিজস্ব প্রতিবেদন: ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন(DRDO)-র তৈরি করোনা ওষুধ সম্পূর্ণ সুরক্ষিত এবং এই ওষুধ ব্যবহারে রোগীর সুস্থতার হারও অনেক বেশি। আশ্বাস দিলেন ইনস্টিটিউট অফ নিউক্লিয়ার মেডিসিন অ্য়ান্ড অ্যালাইড সায়েন্সের(INMAS) বিজ্ঞানী সুধীর চন্দনা। 

আরও পড়ুন: বড় ছেলের দেহ দাহ করে ফিরে স্তম্ভিত বাবা, দেখলেন Covid কেড়েছে ছোট ছেলেকেও

তিনি জানান, প্রথম ক্লিনিক্য়াল ট্রায়াল থেকেই এই ওষুধে ভাল ফল মিলেছে। দ্বিতীয় দফায় ১১০ জন রোগীর উপর এই ওষুধ প্রয়োগ করা হয়। তৃতীয় দফায় ২২০ জন রোগীর উপর প্রয়োগ করা হয়। প্রতিক্ষেত্রেই সন্তোষজনক ফলাফল মিলেছে। সাধারণ সময়ের থেকে দ্রুত সুস্থ হয়েছেন কোভিড আক্রান্ত রোগী। ডাক্তার সুধীর চন্দনা বলেন, "গত বছরের এপ্রিল মাসে ওই ওষুধের প্রথম দফার পরীক্ষা করা হয়। এরপর ২০২১ মে থেকে অক্টোবর পর্যন্ত দ্বিতীয় দফার ট্রায়াল চলে। সন্তোষজনক ফলাফল পাওয়ায়, ২০২০-র ডিসেম্বর থেকে ২০২১-এর মার্চ মাস পর্যন্ত চলে ওষুধের তৃতীয় ট্রায়াল।" 

আরও পড়ুন: মরশুমের প্রথম ঘূর্ণিঝড় 'তাউকতাই', শক্তি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে উপকূলে

প্রসঙ্গত, ভ্যাকসিনের পাশাপাশি এবার করোনা মোকাবিলায় নয়া ওষুধ তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (DRDO)। হায়দরাবাদের ডাক্তার রেড্ডিজ ল্যাবের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এই ওষুধ তৈরি করা হয়েছে। যার নাম 2-deoxy-D-glucose (2-DG)। সম্প্রতি এই ওষুধকে অনুমোদন দিয়েছে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া। শুধুমাত্র জরুরি ক্ষেত্রেই ওষুধটি ব্যবহার করা যাবে। সংস্থার দাবি, করোনা রোগীদের দ্রুত সুস্থ করবে এই ওষুধ। পাশাপাশি আক্রান্তের দেহে অক্সিজেনের পরিমাণও বাড়াবে।