'বাবরি না ভাঙলে রাম মন্দিরের ভূমি পুজো হতো না, ওসব ভুলে যাওয়া উচিত'

২৮ বছর পর বুধবার বাবরি ধ্বংস মামলার রায় দিয়েছে সিবিআই বিশেষ আদালত। ওই রায়ে অভিযুক্ত ৩২ জনকেই বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়েছে

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Sep 30, 2020, 03:30 PM IST
'বাবরি না ভাঙলে রাম মন্দিরের ভূমি পুজো হতো না, ওসব ভুলে যাওয়া উচিত'
ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাবরি রায়ে এক ধাক্কায় মুক্ত ৩২ অভিযুক্ত। এদের মধ্যে অনেকেই সঙ্ঘ পরিবারের। কেউ আবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও। দলের খুব বেশি নেতা ওই কাণ্ডে সক্রিয় অংশ না নিলেও বাবরি ধ্বংসের কৃতিত্ব বারে বারেই দাবি করে শিবসেনা। বুধবার বাবরি রায়কে স্বাগত জানালেন দলের নেতা সঞ্জয় রাউত।

আরও পড়ুন-'সত্য ও ন্যায়বিচারের জয়', যোশী থেকে যোগী, আদালতের রায়ে সবার মুখে একই সুর

রায়ে খুশি সঞ্জয় রাউত সংবাদসংস্থাকে বলেন, আদালত যেভাবে আডবানি, যোশী, উমাকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়েছে তাকে শিবসেনার তরফে স্বাগত জানাচ্ছি।

রাম মন্দির আন্দোলনকে বরাবরের সমর্থনকারী শিবসেনা নেতা আরও বলেন, রায়ে বলা হয়েছে বাবরি ধ্বংসের ক্ষেত্রে কোনও ষড়যন্ত্র ছিল না। এই রায়ই আশা করেছিলাম। ওই ঘটনাটা ভুলে যাওয়া উচিত। সেদিন বাবরি ধ্বংস না হলে অযোধ্যায় রাম মন্দিরের জন্য ভূমি পুজো হতো না।

উল্লেখ্য, ২৮ বছর পর বুধবার বাবরি ধ্বংস মামলার রায় দিয়েছে সিবিআই বিশেষ আদালত। ওই রায়ে অভিযুক্ত ৩২ জনকেই বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়েছে। কারণ তাঁদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ হাজির করতে পারেনি সিবিআই।

আরও পড়ুন-বাবরির রায়: অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ খারিজ, ৩২জনই বেকসুর খালাস

আদালতের মন্তব্য-

## বাবরি মসজিদ ধ্বংস পরিকল্পনা করে হয়নি।

##  অভিযুক্ত ৩২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগের স্বপক্ষে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি।

##  ফোটো ও অডিয়োর সত্যতা প্রমাণ করতে পারেনি সিবিআই।

## যারা মসজিদের গম্বুজের ওপরে উঠেছিল তারা দুষ্কৃতী।

##  ঘটনার সময়য় নেতাদের দেওয়া বক্তব্যের অডিয়ো স্পষ্ট নয়।