ইংরেজ আমল থেকে চলা রেলের খালাসি সিস্টেম এবার বন্ধ, নিয়োগও হবে না

রেল আধিকারিকদের বাংলোয় খালাসিদের কাজ করার রীতি বহু পুরনো। কিন্তু ২০২০-তে দাঁড়িয়ে এমন প্রথা দৃষ্টিকটূ।

Updated By: Aug 7, 2020, 12:27 PM IST
ইংরেজ আমল থেকে চলা রেলের খালাসি সিস্টেম এবার বন্ধ, নিয়োগও হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদন- রেল আধিকারিকের বাংলোয় পরিচারিকার মতো কাজ করবেন রেলেরই কর্মী! ব্যাপারটা দৃষ্টিকটূ। আর এমন প্রথা চলে আসছিল সেই ইংরেজ আমল থেকে। তাই এবার এই মধ্যযুগীর প্রথা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় রেল। বাংলো পিয়ন বা চলতি কথায় খালাসি পদে আর কাউকে নিয়োগ করবে না রেল। এদিন রেলের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, খালাসি সিস্টেম বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। সেইসঙ্গে আগামিদিনে এই পদে আর কাউকে নিয়োগ করা হবে না। রেলওয়ে বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে, তারা এই বহু পুরনো প্রথা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। জুলাই মাসেও খালাসি পদে নিয়োগ করেছে রেল। কিন্তু সেই নিয়োগেও নিষেধাজ্ঞা জারি হবে।

রেল আধিকারিকদের বাংলোয় খালাসিদের কাজ করার রীতি বহু পুরনো। কিন্তু ২০২০-তে দাঁড়িয়ে এমন প্রথা দৃষ্টিকটূ। রেলের এই পদ নিয়ে এর আগেও বহুবার প্রশ্ন উঠেছে। কেন একজন সরকারি আধিকারিকের বাংলোয় আরেকজন সরকারি কর্মীকে কাজ করতে হবে! রেল তাই এবার ব্যাপারটিকে সিরিয়াস ইস্যু হিসাবে দেখছে। রেলের তরফে জানানো হয়েছে, টেলিফোন অ্যাটেড্যান্ট ডাক খালাসির পদে নিয়োগ চিরতরে বন্ধ করা হবে। তবে প্রশ্ন উঠছে, যাঁরা এই পদে চাকরি করছেন তাদের কী হবে! এই নিয়ে রেলের তরফে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে কতজন কর্মী খালাসি হিসাবে কাজ করছেন তার রেকর্ড বের করছে রেল। 

আরও পড়ুন-  আজ চলবে দেশের প্রথম 'কিষান ট্রেন', এই দুঃসময়ে লাভের মুখ দেখতে পাবে কৃষকরা

এমনিতেই সরকার চাকরি এখন আকাশের চাঁদ পাওয়ার মতো। তার উপর দীর্ঘদিন ধরে রেলে নিয়োগ বন্ধ। এরই মধ্যে রেল আবার একটি পদে নিয়োগই বন্ধ করে দিল। এর আগে সেনায় ইঞ্জিনিয়ারিং সেবায় (MES) ৯৩০৪টি পদে নিয়োগ হবে না বলে জানিয়েছে সরকার। এবার রেলেও একটি পদে নিয়োগ বন্ধ। দেশে যেন চাকরিক্ষেত্র ক্রমশ ছোট হয়ে যাচ্ছে।