শিয়রে শমন নীরব মোদীর স্ত্রীর! লাল নোটিস জারি করল ইন্টারপোল

গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসেও ইডির চার্জশিটে নাম ছিল নীরব মোদীর স্ত্রীর।

Edited By: সোমনাথ মিত্র | Updated By: Aug 25, 2020, 04:17 PM IST
শিয়রে শমন নীরব মোদীর স্ত্রীর!  লাল নোটিস জারি করল ইন্টারপোল
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: লন্ডনে গ্রেফতার হয়েছিলেন পিএনবি আর্থিক তছরুপ কাণ্ডের অভিযুক্ত নীরব মোদী। এবার নীরব মোদীর স্ত্রী অমি মোদীকে লাল নোটিস পাঠালো ইন্টারপোল। ভারতে দায়ের হওয়া আর্থিক তছরুপ মামলায় অভিযুক্ত থাকার বিষয়েই অমি মোদীর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলো।

গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসেও ইডির চার্জশিটে নাম ছিল নীরব মোদীর স্ত্রীর। নিউ ইয়র্কের দুটি অ্যাপার্টমেন্টের আর্থিক নয়ছয়ের বিষয়েই দায়ের হয়েছিল অভিযোগ। অক্টোবর মাসে বাজেয়াপ্ত হওয়া ৬৩৭ কোটি টাকার বিদেশি সম্পত্তির মধ্যে ছিল এই অ্যাপার্টমেন্টগুলি।

একই ধরনের লাল নোটিস জারি হয়েছে নীরব মোদীর ভাই নেহাল ও বোন পূর্বীর নামেও। পিএনবি কাণ্ডে নীরব মোদীর সঙ্গে তাঁর কাকা মেহুল চোকসির‌ও নাম রয়েছে সিবিআই চার্জশিটে। মে মাসের চার্জশিট অনুযায়ী, ৬,৪৯৮.২০ কোটি টাকা নয়ছয় করেছিলেন নীরব। মেহুল প্রতারণা করেছিলেন ৭,০৮০.৮৬ কোটি টাকার। কিন্তু সিবিআই তদন্ত শুরু হওয়ার আগেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন দুজন।

এখন অ্যান্তিগুয়াতে রয়েছেন মেহুল। তাঁর কাছে ওই দেশের নাগরিকত্বও রয়েছে। ভারতে  না ফেরার জন্য তিনি তার শারীরিক অবস্থা কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন। তবে গতকালই সে দেশের প্রধানমন্ত্রী গাস্টন ব্রাউনি মেহুলের নাগরিকত্ব প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছেন।

E

নিজস্ব প্রতিবেদন: লন্ডনে গ্রেফতার হয়েছিলেন পিএনবি আর্থিক তছরুপ কাণ্ডের অভিযুক্ত নীরব মোদী। এবার নীরব মোদীর স্ত্রী অমি মোদীকে লাল নোটিস পাঠালো ইন্টারপোল। ভারতে দায়ের হওয়া আর্থিক তছরুপ মামলায় অভিযুক্ত থাকার বিষয়েই অমি মোদীর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলো।

গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসেও ইডির চার্জশিটে নাম ছিল নীরব মোদীর স্ত্রীর। নিউ ইয়র্কের দুটি অ্যাপার্টমেন্টের আর্থিক নয়ছয়ের বিষয়েই দায়ের হয়েছিল অভিযোগ। অক্টোবর মাসে বাজেয়াপ্ত হওয়া ৬৩৭ কোটি টাকার বিদেশি সম্পত্তির মধ্যে ছিল এই অ্যাপার্টমেন্টগুলি।

একই ধরনের লাল নোটিস জারি হয়েছে নীরব মোদীর ভাই নেহাল ও বোন পূর্বীর নামেও। পিএনবি কাণ্ডে নীরব মোদীর সঙ্গে তাঁর কাকা মেহুল চোকসির‌ও নাম রয়েছে সিবিআই চার্জশিটে। মে মাসের চার্জশিট অনুযায়ী, ৬,৪৯৮.২০ কোটি টাকা নয়ছয় করেছিলেন নীরব। মেহুল প্রতারণা করেছিলেন ৭,০৮০.৮৬ কোটি টাকার। কিন্তু সিবিআই তদন্ত শুরু হওয়ার আগেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন দুজন।

এখন অ্যান্তিগুয়াতে রয়েছেন মেহুল। তাঁর কাছে ওই দেশের নাগরিকত্বও রয়েছে। ভারতে  না ফেরার জন্য তিনি তার শারীরিক অবস্থা কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন। তবে গতকালই সে দেশের প্রধানমন্ত্রী গাস্টন ব্রাউনি মেহুলের নাগরিকত্ব প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: পুলওয়ামা কাণ্ডের মূলচক্রী মাসুদ আজহারের নামে চার্জশিট পেশ করতে চলেছে NIA