লালু সঙ্গ ত্যাগ করায় নীতীশের দলে শরদ ভাঙনের আশঙ্কা তীব্র

Updated By: Jul 27, 2017, 08:29 PM IST
লালু সঙ্গ ত্যাগ করায় নীতীশের দলে শরদ ভাঙনের আশঙ্কা তীব্র

ওয়েব ডেস্ক: জনতা দল ইউনাইটেডের ইউনিটি নিয়েই উঠে গেল প্রশ্ন। পাটনা পলিটিক্সে নয়া মোচোড়, লালুর সঙ্গ ছেড়ে নীতীশ বিজেপির হাত ধরলে 'বেসুরে গাইতে পারেন' শরদ যাদব, আগে থেকেই এমন জল্পনা ছিল, এবার সম্ভবত তা সত্যি হতে চলেছে। গতকাল সন্ধ্যায় মহাগাটবন্ধন ভেঙে নাটকীয়ভাবে মুখ্যমন্ত্রীত্বে ইস্তফা দিয়ে বিজেপির হাত ধরে নীতীশের পুনরায় সরকার গড়ার সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, "নীতীশের সিদ্ধান্তে শরদ জি চিন্তিত। দিন দুয়েকের মধ্যে শরদ জি সব জাতীয় দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে এবিষয়ে কথা বলবেন।" দলের আরেক প্রবীন নেতা আলি আনওয়ার বলেন, "রাতারাতি যে এমমন ব্যাপক ঘটনা ঘটতে পারে সে বিষয়ে শরদ জি সহ আমদের অনেকেরই কোনও ধারণাই ছিল না। আমরা নীতীশের থেকে এমনটা কখনই আশা করিনি"।

প্রসঙ্গত, রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, লালুর সঙ্গ ত্যাগ করে বিজেপির হাত ধরলে ব্যাপক হারে যাদব ও সংখ্যা লঘু ভোট ব্যাঙ্কে ধস নামার আশঙ্কায় ভুগছেন শরদ যাদব। তবে এই তালিকায় সবচেয়ে বড় নাম শরদ যাদব হলেও রয়েছেন আরও অনেক নেতা। নীতীশ কুমারের এতদিনকার বাণিজ্যমন্ত্রী বিজেন্দ্র যাদব, পুনম দেবী সহ মোট ১৮ জেডি(ইউ) বিধায়কই হয় মুসলিম নাহলে যাদব শ্রেণীর। আর এঁরা প্রত্যেকেই বরাবর লালুর প্রতি আনুগত্য দেখিয়ে এসেছেন। ফলে, ভোটব্যাঙ্ক হারানোর ভয় থেকে তাঁদের অনেকেই বেঁকে বসতে পারেন। এর মধ্যে আজ সকালেই রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর কাছে গিয়ে বিহারের বিজেপি প্রধান সুশীল মোদী সহ নীতীশ নতুন করে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন। আগামী কাল তাই নীতীশ কুমারকে বিধানসভায় সংখ্যা গরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে হবে। তাই, আগামী কাল ঐতিহাসিক পাটুলিপুত্রে ঘটনা পরম্পরাই এখন জাতীয় রাজনীতির আকর্ষণের কেন্দ্র। তবে আগামীকালই যে সব অঙ্ক মিলে যাবে এমনটা নাও হতে পারে। অনেকেই সময়ের সঙ্গে স্বরূপ প্রকাশ করতে পারেন বলে অনুমান ওয়াকিবহাল মহলের। (আরও পড়ুন- সিবিআই-এর পর ইডি, আরও বিপাকে লালু পরিবার)