PLA-র সাইবার হামলা ইউনিট '৬১৩৯৮'-র নজরে ভারতের প্রতিরক্ষা-গবেষণা সংক্রান্ত তথ্য, হুঁশিয়ারি কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের

২০১৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৫ চিনা সেনা অফিসারের বিরুদ্ধে সেদেশে চরবৃত্তির অভিযোগ আনে। তারা ছিল ওই ইউনিট "৬১৩৯৮" এর সদস্য

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Aug 3, 2020, 06:15 PM IST
PLA-র সাইবার হামলা ইউনিট '৬১৩৯৮'-র নজরে ভারতের প্রতিরক্ষা-গবেষণা সংক্রান্ত তথ্য, হুঁশিয়ারি কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের
প্রতীকী ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন:ভারতের প্রতিরক্ষা ও গবেষণা সংক্রান্ত তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে চিনা সেনার সাইবার চর ইউনিট। পিএলএ-র এই ইউনিটটির পোশাকি নাম "৬১৩৯৮"। সোমবার এমনই হুঁশিয়ারি দিয়েছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

আরও পড়ুন-১৮ বছরের চাপা আগুন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ল লাপুড়িয়া গ্রামে

গত কয়েক মাস ধরে বেশকিছু ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছিল পিএলএ ঘনিষ্ঠ চিনা হ্যাকাররা ভারতের বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ সংস্থার তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। গেয়েন্দাদের দাবি, চিনা সাইবার গোয়েন্দা সংস্থা  "৬১৩৯৮"-র সদর সাংহাইয়ে। ওই ইউনিটটির মাধ্যমে চিনা সেনা ভারতের মহাকাশ গবেষণা ও প্রতিরক্ষা এবং জিও লোকেশন সম্পর্কিত তথ্য চুরি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে ইউনিটটি আরও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এমনটাই সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা।

২০১৫ সাল থেকে পিএলএ দেশের মহাকাশ গবেষণা, সাইবার দুনিয়া ও ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ারকে পিএলএ স্ট্রাটেজিক সাপোর্ট ফোর্স-এর আওতায় এনেছে। ফলে ইউনিট "৬১৩৯৮" এখন পিএলএ-র আওতায়।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দফতর সূত্রে জি নিউজের খবর, চিনা সেনার সাইবার চরবৃত্তিতে তাদের সাহায্য করছে তিনজন সাইবার হ্যাকার। সম্প্রতি তারা দুনিয়াজুড়ে আইসবার্গ, হিডেন লিনাক্স ও এপিটি-১২ নামে তিনটি প্রোগ্রাম ছড়িয়ে দেয়। লক্ষ্য, বিভিন্ন দেশের সরকারি তথ্য হতিয়ে নেওয়া।

আরও পড়ুন-AIIMS ছেড়ে কেন বেসরকারি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা করাচ্ছেন অমিত শাহ! প্রশ্ন ছুড়লেন শশী থরুর

২০১৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৫ চিনা সেনা অফিসারের বিরুদ্ধে সেদেশে চরবৃত্তির অভিযোগ আনে। তারা ছিল ওই ইউনিট "৬১৩৯৮" এর সদস্য। মার্কিন গোয়েন্দাদের ধারণা, "৬১৩৯৮" এর মতো আরও অনেক গোষ্ঠী চিনের হয়ে দুনিয়াজুড়ে চরবৃত্তি করছে। গোয়েন্দাদের আশঙ্কা চিনা হ্যাকাররা যুদ্ধের সময় বহু দেশের পরিকাঠামোর ওপরে সাইবার হামলা চালাতে পারে। ইলেকট্রিক গ্রিড ও কোনও দেশের ব্যাঙ্কিং সিস্টেমেও হানা দিতে পারে তারা।