“জনগণের হাতে তুলে দিয়েছি, প্লিজ তার খেয়াল রাখবেন”, বার্তা বঢরার

লোকসভা নির্বাচনের জন্য যে দিন প্রিয়ঙ্কা উত্তর প্রদেশ পূর্বের প্রচার দায়িত্ব পান এবং কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ পান, সে দিনও তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন স্বামী রবার্ট

Somnath Mitra | Updated: Feb 11, 2019, 04:48 PM IST
“জনগণের হাতে তুলে দিয়েছি, প্লিজ তার খেয়াল রাখবেন”, বার্তা বঢরার

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজই প্রত্যক্ষভাবে রাজনৈতিক ময়দানে অভিষেক হচ্ছে প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরার। এমন দিনে পাশে নেই স্বামী রবার্ট বঢরা। তিনি ফের ইডি দফতরে হাজিরা দিতে গিয়েছেন জয়পুরে। কিন্তু তাঁর মন যে প্রিয়ঙ্কার কাছেই পড়ে রয়েছে, ফেসবুকে রবার্টের একটি  পোস্টেই তা স্পষ্টত। প্রিয়ঙ্কাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে রবার্ট লেখেন, উত্তর প্রদেশে তাঁর এই রাজনৈতিক সফরের জন্য অভিবাদন। সে আমার প্রিয় বন্ধু, যোগ্য স্ত্রী এবং আমাদের সন্তানদের কাছে দায়িত্বশীল মা। তাঁর কথায়, চারিদিক দূষিত রাজনৈতিক বাতাবরণ। কিন্তু আমি জানি, জনগণকে সেবা করাই তার কাজ।

আরও পড়ুন- গুজরাটে বাঘের খোঁজে লাগানো হল ক্যামেরা ট্র্যাপ

লোকসভা নির্বাচনের জন্য যে দিন প্রিয়ঙ্কা উত্তর প্রদেশ পূর্বের প্রচার দায়িত্ব পান এবং কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ পান, সে দিনও তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন স্বামী রবার্ট। তিনি লেখেন, “অভিবাদন পি (প্রিয়ঙ্কা), জীবনের প্রতিটা ধাপে তোমার জয় হোক।” ব্যক্তিগত জীবনে রবার্টের সঙ্গে প্রিয়ঙ্কার সম্পর্ক যে আরও গভীর, তা বোঝা যায় খোদ প্রিয়ঙ্কার বক্তব্যেই। জমি কেলেঙ্কারি মামলায় গত এক সপ্তাহে একাধিকবার রবার্ট বঢরাকে তলব করেছে ইডি। রবার্টের প্রসঙ্গ তুলে প্রিয়ঙ্কাকে দিনভর বিদ্ধ করছে বিজেপি। রবার্টকে প্রিয়ঙ্কার রাজনৈতিক কেরিয়ারে ‘কালো দাগ’ বলে কটাক্ষ করা হচ্ছে। এরপরও সদ্য রাজনীতিতে আসা প্রিয়ঙ্কা জানিয়ে দেন, তাঁর স্বামী এবং পরিবারের পাশেই রয়েছেন তিনি। এমনকি, ইডি দফতরে খোদ নিজের গাড়িতেই রবার্টকে পৌঁছে দিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা।

আরও পড়ুন- ফের ইডির তলব, মাকে নিয়ে জয়পুর পৌঁছলেন রবার্ট বঢরা

বিকানের জমি কেলঙ্কারি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আজই জয়পুরে পৌঁছন রবার্ট বঢরা ও তাঁর মা মৌরিন বঢরা। এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে ৪ বার ইডি দফতরে হাজিরা দিলেন ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরা। তাঁর বিরুদ্ধে লন্ডনের বেআইনিভাবে সম্পত্তি কেনার অভিযোগও রয়েছে। গত সপ্তাহে ৩ দিন রবার্টকে ম্যারাথন জেরা করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বঢরা। তবে, নিজে ‘নিরাপত্তাহীনতায়’ ভুগলেও দেশবাসীর কাছে রবার্ট বঢরা অনুরোধ করেন, “আমরা তাকে জনগণের হাতে তুলে দিয়েছি। দয়া করে তার খেয়াল রাখবেন।”