গান স্যালুটে শেষ বিদায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে

দুপুর একটার পর শববাহী শকটে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মরদেহ নিয়ে আসা হয় লোধি রোডের শ্মশানে।

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Sep 1, 2020, 02:55 PM IST
গান স্যালুটে শেষ বিদায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে

নিজস্ব প্রতিবেদন:ভারতীয় রাজনীতির এক বিশাল অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি। দিল্লির লোধি রোডের শ্মশানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হল ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই প্রণববাবুর পার্থিব শরীর রাখা ছিল তাঁর ১০ রাজাজি মার্গের বাসভাবনে। সেখানে তাঁকে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতি-সহ বহু নেতা। দুপুর একটার পরে শববাহী শকটে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মরদেহ নিয়ে আসা হয় লোধি রোডের শ্মশানে।

আরও পড়ুন-ঋণী অনেকেই, নত শিরে ভারতরত্ন প্রণবকে শেষ শ্রদ্ধা রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী-মনমোহনের

সেনা হাসপাতালে করোনা টেস্টে তাঁর পজিটিভ রিপোর্ট আসে। সেকথা মাথায় রেখে পিপিপি পরেই তাঁর মরদহে শববাহী শকটে তোলেন সেনাকর্মীরা। প্রণব পুত্র অভিজিত্ মুখোপাধ্যায়ও পিপিপি কিট পরেই বাবার শেষকৃত্য সম্পন্ন করেন। শেষশ্রদ্ধায় লোকজনের সংখ্যাও কম করে দেওয়া হয়। শেষকৃত্য গান স্যালুটে শ্রদ্ধা জানানো হয় প্রয়াত নেতাকে।

বাড়িতে পড়ে গিয়ে মাথায় পান প্রণব মুখোপাধ্যায়। তাঁকে ভর্তি করা হয় দিল্লির সেনা হাসপাতালে। সেখানে তাঁর মস্তিস্কে অস্ত্রোপচার করে জমাট বাঁধা রক্ত বের করা হয়। তার পর থেকেই তিনি কোমায় চলে যান। সোমবার তাঁর লড়াই শেষ হয়।

আরও পড়ুন-'আমি PK টিমের সদস্য', ফোন পেতেই ডেকে পাঠাল তৃণমূল নেতা, তারপরই গ্রেফতার!

লাদাখ নিয়ে বর্তমানে চিন-ভারত সম্পর্ক উত্তপ্ত। দুশের সম্পর্কের উন্নতিতে বড়সড় অবদান ছিল প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। মঙ্গলবার বিদেশ মন্ত্রকের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাঁঞ্চাশ বছরের রাজনৈতিক জীবন ছিল প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। ভারত-চিন সম্পর্কের উন্নতিতে তাঁর বিশাল অবদান ছিল। দুদেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে প্রণববাবুর চলে যাওয়া অনেক বড় ক্ষতি।