১৩ বিঘা জমি নিয়ে বিবাদ! রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের পুরোহিতের গায়ে পেট্রল দিয়ে পুড়িয়ে দিল ছ'জন

জানা গিয়েছে, রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত বাবুলাল বৈষ্ণব সেই জমিতে নিজের একটি ছোট ঘর বানানোর জন্য উদ্যোগী হয়েছিলেন। 

Updated By: Oct 9, 2020, 02:17 PM IST
১৩ বিঘা জমি নিয়ে বিবাদ! রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের পুরোহিতের গায়ে পেট্রল দিয়ে পুড়িয়ে দিল ছ'জন

নিজস্ব প্রতিবেদন- ১৩ বিঘা জমি। আর সেই জমি নিয়েই যত বিবাদ। রাজস্থানের করৌলি জেলার এক পুরোহিতকে গায়ে পেট্রোল ঢেলে জ্বালিয়ে দিলো ছজন দুষ্কৃতী। রাজস্থানের রাজধানী জয়পুর থেকে ১৭৭ কিলোমিটার দূরে একটি গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। গ্রামের রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ছিলেন সেই ব্যক্তি। ১৩ বিঘা জমি ছিল মন্দিরের ট্রাস্টি-র। নিয়ম অনুযায়ী, মন্দিরের সেই জমি প্রধান পুরোহিতকে দান করা হয়। যাতে সেই জমিতে ফসল ফলিয়ে প্রধান পুরোহিত জীবিকা নির্বাহ করতে পারেন। অথবা ছোট্ট কুটির বানিয়ে সেখানে থাকতে পারেন। এই ধরনের জমিকে রাজস্থানে 'মন্দির মাফি' বলা হয়।

জানা গিয়েছে, রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত বাবুলাল বৈষ্ণব সেই জমিতে নিজের একটি ছোট ঘর বানানোর জন্য উদ্যোগী হয়েছিলেন। আর তাই সেই জমির কোণে থাকা একটি অংশে বাড়ি তৈরির কাজ শুরু করেন তিনি। ওই অংশে ছোট ছোট টিলা ছিল। তিনি সেগুলো সমান করেন। তারপরই বাড়ি তৈরীর কাজে হাত দেন। ঠিক সেই সময়ে গ্রামের একটি পরিবারের লোক এসে দাবি করে, ওই জমি তাঁদের। আর তারপরই শুরু হয় বিবাদ। ঘটনা গ্রামের পঞ্চায়েত পর্যন্ত গড়ায়। পঞ্চায়েত প্রধানরা রায় দেন, ওই জমির অধিকারী বাবুলাল বৈষ্ণব। তাই তিনি সেখানে বাড়ি তৈরি করে থাকতে পারেন। পঞ্চায়েত রায় দেওয়ার পরই জমির কিছুটা অংশ ঘেরাও করে বাজরা চাষ করেন রাধা-কৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত।

আরও পড়ুন-  ডাক্তার, নার্স সহ স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্ম বিরতির ডাক, দিতে হবে চার মাসের বাকি থাকা বেতন

বাবুলাল জমির যে অংশ সমান করেছিলেন সেখানে রাতারাতি বাড়ি নির্মাণের কাজ শুরু করে দেয় অন্য পরিবারের লোকজন। তখনই প্রধান পুরোহিত এসে বাধা দেন। এরপরই শুরু হয় বচসা। জানা গিয়েছে, গ্রামেরই মিনা সম্প্রদায় সেই পরিবারের ছজন প্রধান পুরোহিতের বাজরার জমিতে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এমনকী সেই পুরোহিতের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেয় ছজন। গ্রামবাসীরা কোনওরকমে সেই পুরোহিতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু কয়েক ঘন্টার মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সেই পুরোহিত। আহত অবস্থায় তিনি অবশ্য ওই পরিবারের ছজনের নামে জবানবন্দি দিয়ে গিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, বচসার মাঝে ছজন তাঁর গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।