আজ ফের ইডি দফতরে প্রিয়ঙ্কার স্বামী রবার্ট বঢরা

 ইতিমধ্যে ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরাকে এ সব বিষয়ে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা। ভোটের মুখে একাধিকবার জেরার প্রসঙ্গে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তুলেছেন রবার্ট বঢরা

Updated By: Feb 9, 2019, 01:04 PM IST
আজ ফের ইডি দফতরে প্রিয়ঙ্কার স্বামী রবার্ট বঢরা
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: বুধবার ও বৃহস্পতিবার এই দু’দিনে রবার্ট বঢরাকে মোট ১১ ঘণ্টা জেরা করেছে ইডি। আজ, শনিবার ফের হাজিরা দিচ্ছেন কংগ্রেসের নব নিযুক্ত সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরার স্বামী রবার্ট। লন্ডনে বেনামি সম্পত্তি, অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারির সঙ্গে যোগসাজশ এবং কিছু ইমেলের উত্তর খুঁজতেই আজ রবার্ট বঢরাকে তলব করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন- বিধানসভার ঝাড়ুদার হতে আবেদন ইঞ্জিনিয়ারদের

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যে ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরাকে এ সব বিষয়ে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা। ভোটের মুখে একাধিকবার জেরার প্রসঙ্গে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগ তুলেছেন রবার্ট বঢরা। তাঁর বিরুদ্ধে লন্ডনের ১২ ব্রায়ানস্টোন স্কোয়ারের ১৯ লক্ষ পাউন্ডের বেনামে সম্পত্তি থাকার অভিযোগ রয়েছে। দুবাইয়ের মাধ্যমে ওই সম্পত্তি বঢরার নামে কেনা হয় বলে দাবি ইডির। সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার জিজ্ঞাসাবাদের সময় রবার্টকে কিছু ইমেইল সম্পর্কিত প্রশ্ন রাখে ইডি। অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারির ঘনিষ্ঠ লন্ডনের বাসিন্দা সুমিত চাধার সঙ্গে বঢরার সম্পর্কের কথা জানতে চাওয়া হয়। ইমেলে মনোজ নামে এক ব্যক্তির নাম উঠে আসে। বেনামে সম্পত্তি কেনাবেচায় নাম রয়েছে স্কাইললাইট হসপিটালিটি সংস্থার প্রাক্তন কর্মচারি এই মনোজের। রবার্ট বঢরার সঙ্গে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল বলে জানা যায়।

আরও পড়ুন- কাশ্মীরে তুষার ধসে মৃত ৭, উদ্ধার ৩ জন

চলতি সপ্তাহে গত দু-দিনের জেরায় নিজের গাড়ি করেই স্বামী রবার্ট বঢরাকে পৌঁছে দেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা। বিকেলে নির্দিষ্ট সময়ে রবার্টকে নিতে প্রিয়ঙ্কার গাড়ি পৌঁছয় ইডি দফতরে। আর্থিক দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত রবার্ট বঢরার পাশেই রয়েছে বলে দাবি করেন প্রিয়ঙ্কা। তিনি বলেন, “আমার স্বামী এবং পরিবারের পাশেই রয়েছি। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার ষড়যন্ত্র চলছে। সবাই জানে সেটা।” প্রত্যক্ষ রাজনৈতিক ময়দানে আসার পরই বিজেপি প্রিয়ঙ্কার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ কংগ্রেসের। বঢরা ইস্যুতে সুর চড়াতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। তিনি অভিযোগ করেন, বিরোধীরা একজোট হতেই ইডির অস্ত্রে শান দিচ্ছে বিজেপি। ভয় পেয়েই এমন প্রচেষ্টা তাদের। বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলেন মমতা।