করোনার জেরে বিশ্ব মন্দার প্রভাব সম্ভবত পড়বে না ভারত-চিনে: রাষ্ট্রসঙ্ঘ

UNCTAD বলছে,'মন্দার কবলে পড়তে চলেছে বিশ্ব অর্থনীতি। এর ফলে গুরুতর সমস্যার সম্মুখীন হবে উন্নয়নশীল দেশগুলি।

Updated By: Mar 31, 2020, 06:07 PM IST
করোনার জেরে বিশ্ব মন্দার প্রভাব সম্ভবত পড়বে না ভারত-চিনে: রাষ্ট্রসঙ্ঘ

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ধাক্কা খেয়েছে বিশ্ব বাণিজ্য। বিভিন্ন দেশে লকডাউনের জেরে থমকে গিয়ে কারবার। এই পরিস্থিতিতে আর্থিক মন্দা অবধারিত। তবে তা থেকে রক্ষা পেতে পারে ভারত ও চিন। রাষ্ট্রসঙ্ঘের বাণিজ্য রিপোর্ট বলছে, ভারত, চিন ছাড়া উন্নয়নশীল দেশগুলি গুরুতর সমস্যায় পড়তে চলেছে। 

বিশ্বের দুই-তৃতীয় জনসংখ্যা রয়েছে উন্নয়নশীল দেশগুলিতে। কোভিড-১৯ অতিমারীর জেরে তারা সংকটে পড়েছে। ওই দেশগুলির জন্য চাই ২.৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার আর্থিক ত্রাণ প্যাকেজ। United Nations Conference on Trade and Development-এর  'The COVID-19 Shock to Developing Countries: Towards a 'whatever it takes' শীর্ষক বিশ্লেষণী রিপোর্টে বলা হয়েছে, বিশ্বের দুই-তৃতীয়াংশ জনসংখ্যা পিছিয়ে পড়তে চলছে। পণ্য রফতানিতে শীর্ষে থাকা দেশগুলির আগামী ২ বছরে বিনিয়োগ পড়তে পারে ২ ট্রিলিয়ন থেকে ৩ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ৫ ট্রিলিয়ন ডলার প্যাকেজ ঘোষণা করেছে চিনের সরকার। 

UNCTAD বলছে,'মন্দার কবলে পড়তে চলেছে বিশ্ব অর্থনীতি। এর ফলে গুরুতর সমস্যার সম্মুখীন হবে উন্নয়নশীল দেশগুলি। তবে চিনে প্রভাব পড়বে না। ভারতেরও বেঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।' আর্থিক মন্দার মোকাবিলায় চারটি কৌশল প্রস্তাব করেছে তারা। এর মধ্যে রয়েছে আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের (International Monetary Fund) মাধ্যমে ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্যাকেজ। উন্নয়নশীল দেশগুলির কাছে  ঋণবাবদ পাওনা আরও ১ ট্রিলিয়ন চলতি বছর বাতিল করা হোক। এবং ৫০০ বিবিয়ন ডলারের তহবিল বিনিয়োগ করা হোক স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পুনরুদ্ধারে। 

আরও পড়ুন- কোচেই করোনার চিকিত্সা; ৩,২০,০০০ বেড তৈরি রাখছে ভারতীয় রেল