ধোনির সঙ্গে কোনও বিরোধ ছিল না, অবসর নিয়েছিলেন নিজের সিদ্ধান্তেই!

গ্রেগ চ্যাপেলের আন্তর্জাতিক দল চালানোর ধারণাই নেই, তাঁর ম্যানেজমেন্ট স্কিল একেবারেই প্রশংসনীয় নয়, আত্মজীবনী-তে লিখেছেন ভিভিএস লক্ষ্মণ। গ্রেগের সময় ভারতীয় দল দু’ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছিল বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

Updated By: Dec 3, 2018, 08:22 PM IST
ধোনির সঙ্গে কোনও বিরোধ ছিল না, অবসর নিয়েছিলেন নিজের সিদ্ধান্তেই!

নিজস্ব প্রতিবেদন: অবশেষে প্রকাশিত হল ভিভিএস লক্ষ্মণের আত্মজীবনী ‘২৮১ অ্যান্ড বিয়ন্ড’। আর প্রত্যাশা মতোই আত্মপ্রকাশেই লক্ষ্মণের আত্মজীবনী নিয়ে হইচই পড়ে গেল। ক্রিকেট জীবনের এমন কিছু অধ্যায়ের কথা এই বইতে লক্ষ্মণ তুলে ধরেছেন যা এতদিন পর্যন্ত স্রেফ ‘তালাবন্দি অন্দরমহল’ হয়েই থেকে গিয়েছিল। এতদিন পর সেই অন্ধকার অন্দরমহলের তালা খুলে অনেক ধামাচাপা পড়া সত্যই সামনে নিয়ে এলেন ভিভিএস। যারা মনে করতেন বা এখনও মনে করেন ২০১২ সালে ভিভিএসের হঠাত্ অবসরের জন্য ধোনিই দায়ী, তাদের কাছে সত্যিটা তুলে ধরবে এই ‘২৮১ অ্যান্ড বিয়ন্ড’।

আত্মজীবনীতে পরিষ্কার করে ভিভিএস লিখেছেন, অবসর নেওয়ার জন্য কোনও ভাবেই তাঁর  উপর কোনও রকম চাপ সৃষ্টি করা হয়নি। বরং দলের সতীর্থরাই তাঁকে অবসরের সিদ্ধান্ত বদল করার জন্য অনেক বুঝিয়েছিল। কিন্তু তিনি শোনেননি। এই বইতে লক্ষ্মণ লিখেছেন, “আমাকে অবসর নেওয়ার জন্য বাধ্য করা হয়নি। নিজের মনের কথা শুনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আমার জীবনের প্রতিটা সিদ্ধান্ত-ই নিয়েছি আত্ম উপলব্ধি থেকে। অবসরের সিদ্ধান্তটাও তাই। আমি আমার বাবার পরামর্শ পর্যন্তও শুনিনি”। সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে অবসর ঘোষণা করার আগে পর্যন্তও তাঁকে তাঁর সিদ্ধান্ত বদলের জন্য বুঝিয়ে ছিলেন জাহির খান, সচিন তেন্ডুলকরের মতো ক্রিকেটাররা। ভিভিএস কারোর কথা শোনেনি।

আরও পড়ুন- এক ইনিংসে ১৭টা ছয়, যুবরাজকে ছুঁয়ে দ্বিশতরান করলেন অনূর্ধ্ব ১৯ তারকা

আত্মজীবনীতে ভিভিএস তুলে ধরেছেন ভারতীয় ক্রিকেটে গ্রেগ অধ্যায়ের কথাও। এই বইয়ের  প্রচ্ছদ প্রকাশের পরই তা নিয়ে উচ্চাশা প্রকাশ করেছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।  লক্ষ্মণের জীবনী আত্মপ্রকাশ করা মাত্রই সৌরভের সেই প্রত্যাশা বোধহয় পূর্ণ হয়ে গেল। প্রিন্স অব কলকাতা যেভাবে স্টেপ আউট করে গ্রেগ চ্যাপেলকে মাঠের বাইরে ফেলেছিলেন, ঠিক একই রকম ভাবে প্রাক্তন অজি অধিনায়ককে ধুয়ে দিলেন লক্ষ্মণও। গ্রেগ চ্যাপেলকে ব্যাটসম্যান হিসেবে সম্মান করেন, কিন্তু কোচ হিসেবে তাঁকে সেই জায়গায় রাখতে পারছেন না, স্পষ্ট লিখেছেন ভিভিএস। এখানেই শেষ নয়। ভিভিএস গ্রেগ চ্যাপেল সম্পর্কে বলেছেন, “ভারতীয় দলের মঙ্গলকামনা নিয়ে তিনি এসেছিলেন। আর যখন গেলেন, গোটা দলকে কাঁদিয়ে গেলেন।” গ্রেগ চ্যাপেলের আন্তর্জাতিক দল চালানোর ধারণাই নেই, তাঁর ম্যানেজমেন্ট স্কিল একেবারেই প্রশংসনীয় নয়, আত্মজীবনী-তে লিখেছেন ভিভিএস লক্ষ্মণ। গ্রেগের সময় ভারতীয় দল দু’ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছিল বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- মিতালিদের কোচ ঠিক করবেন সেই সচিন-স‍ৌরভ-লক্ষ্মণ

এই বইতে ইডেন নিয়েও অনেক কথা লিখেছেন এই দক্ষিণী ব্যাটসম্যান। ইডেন গার্ডেনসকে তাঁর স্বপ্নের নাট্যমঞ্চ বললেও কম বলা হবে, এমনই বক্তব্য ভিভিএসের।