ধোনি ভাঙবেন, তবু মচকাবেন না!

বিদেশের মাটিতে ০-৮ হারের পর টি টোয়েন্টিতেও ব্যর্থতা অব্যাহত ভারতর।টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পরপর তিন বার ভারত বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে যেতে পারল না। আইপিএলের দেশ কিনা বিশ্বের সেরা চার টি টোয়েন্টি খেলিয়ে দেশের মধ্যেই নেই! এবারের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার এইটে বিদায় নেওয়াকে দলের ব্যর্থতা হিসাবে মানতে নারাজ। ধোনি বলছেন,"সুপার এইটে দু’টো ম্যাচ আমরা জিতেছি। কিন্তু আমাদের ভাগ্য সঙ্গ দিল না।

Updated By: Oct 3, 2012, 10:05 AM IST

বিদেশের মাটিতে ০-৮ হারের পর টি টোয়েন্টিতেও ব্যর্থতা অব্যাহত ভারতর।টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পরপর তিন বার ভারত বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে যেতে পারল না। আইপিএলের দেশ কিনা বিশ্বের সেরা চার টি টোয়েন্টি খেলিয়ে দেশের মধ্যেই নেই! তবু সে দেশের অধিনায়ক দিব্যি আছেন।
এবারের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার এইটে বিদায় নেওয়াকে দলের ব্যর্থতা হিসাবে মানতে নারাজ। ধোনি বলছেন,"সুপার এইটে দু’টো ম্যাচ আমরা জিতেছি। কিন্তু আমাদের ভাগ্য সঙ্গ দিল না।"কিন্তু তাঁর অধিনায়কত্ব নিয়ে তো অনেক বড়সড় প্রশ্ন দেখা দিল। রোহিত শর্মা, ঘূর্ণি পিচে স্পিনার কম খেলানো, অদ্ভূত সব বোলিং চেঞ্জ। অনেক কিছু ধোনি করেছেন যা ক্রিকেটীয় যুক্তির বাইরে। এসব প্রশ্ন ধোনিকে করা হলেই তিনি দার্শনিক বনে যাচ্ছেন।
ভারত অধিনায়ক বলছেন, "আরে, এক কথা তো আমি অস্ট্রেলিয়া থেকে শুনে আসছি। ওখানেও রোজ লোকে জিজ্ঞেস করত। একটা জিনিস বোঝার চেষ্টা করুন। এ বারের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়াটা প্লেয়ারদের দোষ নয়। দু’টো দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটল। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ঠিক আমরা বল করার সময় বৃষ্টি নামল। পাকিস্তানও অতো বড় ব্যবধানে অস্ট্রেলিয়াকে হারল। সবই ঘটল আমাদের খারাপ ভাগ্যের কারণে। "সাফাইটা বেশ ভালই গাইতে পারেন ধোনি। বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেওয়ার পরই বললেন, "আমি বলব আমাদের পারফরম্যান্স বেশ ভালই হয়েছে।" তবে পরে মেনে নিলেন এভাবে বিদায় নিতে হওয়ায় তিনি হতাশ।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ চারে ভারত পৌঁছতে না পারার জন্য দলগত ব্যর্থতাকেই দায়ী করলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারত অধিনায়ক বলেন এই টুর্নামেন্টে বোলিং,ব্যাটিং ও ফিল্ডিং- তিন বিভাগেই খারাপ পারফরম্যান্স করেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাঁদের আরও দশ থেকে পনেরো রান বেশি করা উচিত ছিল।
তাঁর মতে প্রথম দশ ওভারের মধ্যে দুই-তিন উইকেট হারানোর ফলে শেষ পাঁচ ওভারে ব্যাটসম্যানরা চাপে পড়ে গিয়েছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে একজন বোলার কম নিয়ে খেলানোর পিছনে ধোনির যুক্তি রান তাড়া করার ব্যাপারটি মাথায় রেখে বাড়তি ব্যাটসম্যান নেওয়া হয়েছিল।
       
রোহিত শর্মা গোটা টুর্নামেন্টে ভাল পারফর্ম না করেও প্রথম একাদশে জায়গা পেয়েছেন। অথচ মনোজ তেওয়ারির মত ক্রিকেটারকে সুযোগ দেওয়া হয়নি। এব্যাপারে যতই ধোনির সমালোচনা হোক না কেন তিনি ফের রোহিতের পাশে দাঁড়িয়েছন।