রায়না, জাদেজার ঘুষ নেওয়া নিয়ে ললিত মোদীর ইমেল প্রাপ্তির কথা স্বীকার আইসিসি-র

ললিত মোদীর সেই বিতর্কিত চিঠি (ইমেল) প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে নিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। রবিবার আইসিসি-এর এই মুখপাত্র জানিয়েছেন ২০১৩ সালে সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ ডেভিড রিচার্ডসনকে একটি চিঠি লেখেন প্রাক্তন আইপিএল কর্তা ললিত মোদী। এই চিঠিতে তিনি তিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন।  

Updated By: Jun 29, 2015, 01:22 PM IST
রায়না, জাদেজার ঘুষ নেওয়া নিয়ে ললিত মোদীর ইমেল প্রাপ্তির কথা স্বীকার আইসিসি-র

ওয়েব ডেস্ক: ললিত মোদীর সেই বিতর্কিত চিঠি (ইমেল) প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে নিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। রবিবার আইসিসি-এর এই মুখপাত্র জানিয়েছেন ২০১৩ সালে সংস্থার চিফ এক্সিকিউটিভ ডেভিড রিচার্ডসনকে একটি চিঠি লেখেন প্রাক্তন আইপিএল কর্তা ললিত মোদী। এই চিঠিতে তিনি তিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন।  

শুক্রবার টুইটারে ললিত মোদীর ইমেল বোমা ঘিরে হইচই পড়ে যায়। এই টুইটে মোদীকে উদ্ধৃত করে বলা হয়''রবীন্দ্র জাদেজা, ডায়েন ব্র্যাভো ও সুরেশ রায়নার সঙ্গে এইচডিআইএল-এর রিয়েল এস্টেট টাইকুন বাবা দিওয়ানের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে। বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানতে পেরেছি এই তিনজনকে নগদ টাকা ও দামি উপঢৌকন (ফ্ল্যাট) দিয়েছেন বাবা দিওয়ান । প্রত্যেকের পিছনে অন্তত ২০ কোটি টাকা খরচ করেছেন।''

আইসিসি মুখপাত্র জানিয়েছেন ''২০১৩ সালে মোদী আইসিসি-কে গোপন মেলটি পাঠিয়েছিলেন। সেই সময়েই ACSU-কে বিষয়টি জানানো হয়েছিল। বিসিসিআই-এর দুর্নীতি বিরোধী শাখাকেও এই মেলটি পাঠানো হয়েছিল।''

সব জেনেও এত দিন কেন চুপ ছিল বিসিসিআই? এই প্রশ্নের উত্তরে প্রাক্তন BCCI ACSU প্রধান রবি সাওয়ানি বল ঠেলে দিয়েছেন আইসিসি-র কোর্টেই। তাঁর দাবি বিসিসিআই বিষয়টি জানলেও তদন্তের দায়িত্ব ছিল আইসিসি-র উপর। তাঁর যুক্তি BCCI ACSU শুধুমাত্র ঘরোয়া টুর্নামেন্ট ও খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে পারে। এই তিনজনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার, তাই এক্ষেত্রে তদন্তের দায়ও বর্তায় আইসিসি-র উপর।

অন্যদিকে  ICC-এর দুর্নীতি বিরোধী শাখার প্রধান ওয়াইপি সিং জানিয়েছেন তাঁরা বিষয়টির উপর নজর রেখে ছিলেন। কিন্তু, যেহেতু ললিত মোদী আইপিএল নিয়ে নির্দিষ্ট কোনও অভিযোগ করেননি তাই তাঁরাও নাকি এনিয়ে বেশি দূর এগোতে পারেননি।  

এ বিষয়ে রায়না ও জাদেজার সঙ্গে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কোনও উত্তর পাওয়া যায়নি।