close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

জল্পনার অবসান, ভারতীয় দলের কোচ থাকছেন রবি শাস্ত্রীই

ভারতীয় দলের অধিকাংশ ক্রিকেটার ও টিম ম্যানেজমেন্টের অনেকেই শাস্ত্রীকে পুনরায় কোচ হিসাবে চেয়েছিলেন বলে খবর ছিল। 

Updated: Aug 16, 2019, 07:00 PM IST
জল্পনার অবসান, ভারতীয় দলের কোচ থাকছেন রবি শাস্ত্রীই

নিজস্ব প্রতিবেদন : জল্পনার অবসান। বিরাট কোহলিদের কোচ থাকছেন রবি শাস্ত্রীই। দ্বিতীয় দফায় ভারতীয় দলের কোচ হিসাবে দায়িত্ব পেলেন শাস্ত্রী। অ্যাডভাইসরি কমিটির সদস্য অংশুমান গায়কোয়াড আগেই জানিয়েছিলেন যে রবি শাস্ত্রীর কোচ হিসাবে বহাল থাকার সম্ভাবনা বেশি। সেটাই হল। আগামী টি-২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোহলিদের হেডস্যর থাকছেন শাস্ত্রী। ২০০৭-এ দলের ম্যানেজার। ২০১৪-১৬ টিম ডিরেক্টর। তার পর ২০১৭-১৯ ভারতীয় দলের কোচ হিসাবে দায়িত্ব সামলেছেন শাস্ত্রী।

আরও পড়ুন-  ব্যাটসম্যান সচিনের অনন্য রেকর্ডে থাবা বসালেন বোলার সাউদি

কোচ বাছাইয়ের চূড়ান্ত তালিকায় ছয় জন আবেদনকারী ছিলেন। রবি শাস্ত্রী ছাড়াও ছিলেন টম মুডি, ফিল সিমনস্, মাইক হেসন, লালচাঁদ রাজপুত ও রবিন সিং ছিলেন সেই তালিকায়। ফিল সিমন্স ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আগেই নাম তুলে নিয়েছিলেন। তিন সদস্যের উপদেষ্টা কমিটি সদস্য কপিল দেব, অংশুমান গায়কোয়াড এবং শান্তা রঙ্গস্বামী এদিন ফিল সিমন্স, রবিন সিং ও লালচাঁদ রাজপুতের ইন্টারভিউ নেন। কিন্তু বাকিদের থেকে শাস্ত্রী অনেকাংশে এগিয়ে ছিলেন। তাঁর কোচিংয়ে দল এক নম্বর টেস্ট দল হিসাবে নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছিল। তা ছাড়া তাঁর তত্ত্বাবধানেই ভারতীয় দল  ৭১ বছর পর অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজ জিতেছিল। শাস্ত্রীর আমলে ভারতীয় দল ২১টির মধ্যে ১৩টি টেস্ট, ৬০টির মধ্যে ৪৩টি ওয়ান ডে ও ৩৬টির মধ্যে ২৫টি টি-২০ জিতেছে। ফলে সব দিক থেকেই দ্বিতীয় দফায় দায়িত্ব পাওয়ার ব্যাপারে এগিয়ে ছিলেন শাস্ত্রী।

আরও পড়ুন-  কোহলির কীর্তি! এক দশকে ২০,০০০ আন্তর্জাতিক রান করে বিরাটের বিশ্বরেকর্ড

ভারতীয় দলের অধিকাংশ ক্রিকেটার ও টিম ম্যানেজমেন্টের অনেকেই শাস্ত্রীকে পুনরায় কোচ হিসাবে চেয়েছিলেন বলে খবর ছিল। ২০২১ সাল পর্যন্ত কোচ হিসাবে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছেন রবি শাস্ত্রী। এদিন অবশ্য সশরীরে উপদেষ্টা কমিটির সামনে ইন্টারভিউ-এর জন্য হাজির থাকতে পারেননি শাস্ত্রী। কারণ তিনি এখন দলের সঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজে। শাস্ত্রী ভিডিয়ো কনফারেন্স-এর মাধ্যমে কপিল দেবের কমিটির সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করেন। টম মুডিও ভিডিয়ো কনফারেন্স-এর মাধ্যমে ইন্টারভিউ দেন।