‘দেশের অবমাননা’, পাক ক্রিকেটারকে তুলোধনা সুনীল গাওয়াসকরের

এশিয়া কাপে ভারত পাক ম্যাচে এই কিংবদন্তি ক্রিকেটারের ‘চক্ষুশূল’ হলেন দুই ক্রিকেটার। একজন পাকিস্তানের ওপেনার ফকর জামান এবং অন্যজন দীনেশ কার্তিক।

Updated By: Sep 20, 2018, 01:30 PM IST
‘দেশের অবমাননা’, পাক ক্রিকেটারকে তুলোধনা সুনীল গাওয়াসকরের

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভারতের জয় কিংবা পাকিস্তানের হার নিয়ে তিনি বিন্দুমাত্র ভাবিত নন। তবে তাঁর চিন্তা বাড়িয়েছে বর্তমান সময়ের ক্রিকেটারদের আচার-আচরণ এবং ‘বডি ল্যাঙ্গুয়েজ’। পেশাদার ক্রিকেটাররা যেভাবে ‘ক্রিকেটীয় সংস্কৃতি’র পরিবর্তন ঘটাচ্ছেন, তা একেবারেই ভাল চোখে দেখছেন না বিশ্ববরেণ্য ক্রিকেটার সুনীল গাওয়াসকর। আর এই বিষয়ে কোনও রাখঢাক না রেখেই নিজের মতামত ব্যক্ত করেতেও পিছপা হননি সানি।

আরও পড়ুন- সূচি বদলাল এশিয়া কাপের, দেখে নিন নতুন ক্রীড়াসূচি

এশিয়া কাপে ভারত পাক ম্যাচে এই কিংবদন্তি ক্রিকেটারের ‘চক্ষুশূল’ হলেন দুই ক্রিকেটার। একজন পাকিস্তানের ওপেনার ফকর জামান এবং অন্যজন দীনেশ কার্তিক।

আরও পড়ুন- এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে হেলায় হারাল টিম ইন্ডিয়া

দুবাইয়ের ম্যাচে টুপি উল্টো করে পড়ে বোলিং করেছেন ফকর। পাক তারকার এই আচরণ একেবারেই পছন্দ হয়নি সুনীল গাওয়াসকারের। ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় এই দৃশ্য দেখে একপ্রকার চটেই যান ‘সানি ভাই’। তিনি বলেন, “অধিনায়কের ওকে (ফকর জামান) বলা উচিত, এটা জাতীয় দলের টুপি। এটাকে নিষ্ঠার সঙ্গে পড়া উচিত। তুমি চাইলে পিএসএল-এ (পাকিস্তান ক্রিকেট লিগ) এমন করতে পারো, কিন্তু মাথায় রাখা উচিত এটা জাতীয় দল”।

এরপরই নিজের ক্রিকেট জীবনের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে গাওয়াসকর বলেন, ছোটবেলায় ক্রিকেটীয় শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার পাঠ তিনি শিখেছেন ‘মার্শালে’র কাছ থেকে। দাদর ইউনিয়ন ক্লাবে ক্রিকেট খেলার সময় তাঁর মেন্টর তাঁকে বলেছিলেন, “ক্রিকেটার না হলেও অন্তত তাঁদের মতো পোশাক পড়ার চেষ্টা কর”।

আরও পড়ুন- কোমরে ইনজুরি, পাণ্ডিয়ার চোটের গুরুত্ব নিয়ে ধোঁয়াশা

এরপর দীনেশ কার্তিকের জার্সিতে লেখা তাঁর ডাক নাম নিয়েও নিজের ক্ষোভ ব্যক্ত করতে শোনা যায় এই কিংবদন্তিকে। ৬৯ বছরের বর্ষীয়ান এই ক্রিকেটার ভারতীয় তারকার জার্সিতে ‘ডিকে’ লেখা প্রসঙ্গে বলেন, “ডিকে তাঁর ডাক নাম হতেই পারে। তবে জার্সির নাম আর নম্বর দিয়েই একজন ক্রিকেটার পরিচিতি পায়”। ফলে, এ ক্ষেত্রে ডাকনাম ব্যবহারে ঘোর আপত্তি আনখশির ধ্রুপদী ঘরানার গাওয়াসকরের।

প্রসঙ্গত, সুনীল গাওয়াসকর সবসময়ই শৃঙ্খলপরায়ণতাকে সর্বাগ্রে রেখে এসেছেন। নিয়ম নিষ্ঠায় তিনি নিজেই একটি প্রতিষ্ঠান। ব্যক্তি জীবন তো বটেই, ক্রিকেট মাঠে এবং তার বাইরেও এই মারাঠি কিংবদন্তি বরাবরই থেকেছেন ধ্রুপদী এবং এখনও সেই অবস্থান থেকে একচুলও সরেননি তিনি। এবারও সেই মানসিকতার ঝলকই দেখা গেল এশিয়া কাপের ভারত-পাক ম্যাচেও, এমনটাই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।।