সন্তানের গায়ের রং নাপসন্দ, শ্বশুরবাড়ির গঞ্জনায় আত্মঘাতী বধূ

কালিয়াচকের বাহাদুরপুরের বাসিন্দা মল্লিকার  সঙ্গে  ১২বছর আগে হবিবপুর থানার  তিলাশনের বাসিন্দার সঙ্গে  বিয়ে হয়।

Updated: Feb 11, 2019, 02:29 PM IST
সন্তানের গায়ের রং নাপসন্দ, শ্বশুরবাড়ির গঞ্জনায় আত্মঘাতী বধূ

নিজস্ব প্রতিবেদন:  সন্তানের গায়ের রং পছন্দ হয়নি স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের। তার জন্য প্রতিনিয়ত গঞ্জনা শুনতে হত তাঁকে। অপমান সহ্য করতে না পেরে গায়ে আত্মঘাতী গৃহবধূ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার হবিবপুরের তিলাসন গ্রামে। মৃতের নাম মল্লিকা ভুঁইমালি (২৭)।

আরও পড়ুন-গুলি করার পর বন্দুক এলাকাতেই ছেড়ে পালায় 'খুনি', কিন্তু কেন? বিধায়ক খুনে অদ্ভূত তথ্য সামনে

কালিয়াচকের বাহাদুরপুরের বাসিন্দা মল্লিকার  সঙ্গে  ১২বছর আগে হবিবপুর থানার  তিলাশনের বাসিন্দার সঙ্গে  বিয়ে হয়। তাঁদের তিনটি কন্যা সন্তান রয়েছে।  তিন কন্যা সন্তানই শ্যামবর্ণ হওয়ায় অশান্তি করতেন স্বামী।  ওই গৃহবধূকে দিনের পর দিন ধরে কটূক্তি করা হত বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন-আজ কৃষ্ণনগরে অভিষেক, মতুয়া সংঘের প্রতিনিধি দল, বিধায়ক খুনে এখনও সূত্র অধরা

গত বুধবার ওই গৃহবধূ অপমানে ঘরে রাখা  কেরোসিন তেল ঢেলে গায়ে আগুন লাগিয়ে দেন বলে অভিযোগ।  তাঁর আর্তনাদ শুনে প্রতিবেশীরাই ছুটে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করেন।  তাঁকে  মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।   সোমবার  সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে বাপেরবাড়ির পক্ষ থেকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।  তদন্তে নেমেছে হবিবপুর থানার পুলিশ।